ঢাকা, সোমবার, ২ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সাক্ষাৎকার

টুঙ্গীপাড়াকে মাদকমুক্ত করতে চান আহমদ হোসেন

একরামুল কবীর, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০১৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৮, ২০১৬
টুঙ্গীপাড়াকে মাদকমুক্ত করতে চান আহমদ হোসেন ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়া পৌরসভাকে মাদকমুক্ত করতে পৌরসভার প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে প্রচারণা চালাবেন। এতে কাজ না হলে প্রত্যেক ওয়ার্ডে মাদক প্রতিরোধ কমিটি গঠন করবেন।

ওই কমিটি মাদকের বিরুদ্ধে কাজ করবে।

এভাবেই গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়া পৌরসভাকে মাদকমুক্ত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত টুঙ্গীপাড়া পৌরসভার মেয়র শেখ আহমদ হোসেন মির্জা।

শনিবার (২ জানুয়ারি) বাংলানিউজকে সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় এ পরিকল্পনার কথা জানান তিনি।

পৌরসভাকে দুর্নীতিমুক্ত করতে রয়েছে এ বিষয়ে শেখ আহমদ হোসেন মির্জার নিজস্ব পরিকল্পনা।

তিনি জানান, পৌরসভাকে দুর্নীতিমুক্ত করতে তিনি প্রকৌশল বিভাগসহ বিভিন্ন বিভাগের কাজ নিজেই মনিটরিং করবেন। দু’একদিন পরপর চলমান কাজ নিজেই পরিদর্শন করবেন।

কারো বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

পৌরসভার উন্নয়ন নিয়ে নিজের স্বপ্নের কথাও জানান তিনি। বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ মতো আমি টুঙ্গীপাড়া পৌরসভাকে একটি আলোকিত পৌরসভা বানাতে চাই। পৌর এলাকার নাগরিক অসুবিধাগুলো চিহ্নিত করে পরিকল্পিত রাস্তা-ঘাট ও ড্রেনেজের ব্যবস্থা করতে চাই। পৌর এলাকার বিভিন্ন সড়কে বাতির ব্যবস্থা করতে চাই।

স্থানীয় বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানের জন্যও প্রকল্প গ্রহণের ইচ্ছার কথা জানান নতুন এ মেয়র।

শেখ আহমদ হোসেন মির্জা টুঙ্গিপাড়া গ্রামের মৃত শেখ মাহাফুজুল হক ও মহাব্বাতুন নেছার ছেলে। বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের ডেপুটি ম্যানেজার হিসেবে অবসর নেন ২০১৪ সালের ৭ সেপ্টেম্বর।

এরপর স্থানীয় রাজনীতি এবং বিভিন্ন সামাজিক ও উন্নয়নমূলক কাজের সঙ্গে নিজেকে সম্পৃক্ত করেন। পরে  দুর্নীতিমুক্ত ও মাদকমুক্ত পৌরসভা গড়ার ঘোষণা দিয়ে নিজেকে মেয়র প্রার্থী ঘোষণা করেন।

পরে তিনি টুঙ্গীপাড়া পৌরসভায় আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পান। কিন্তু এ পৌরসভায় আর কোনো বৈধ প্রার্থী না থাকায় গত ১৪ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশন তাকে মেয়র ঘোষণা করে।

বাংলাদেশ সময়: ১০১৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৮, ২০১৫
এসআর/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa