ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২৩ শাবান ১৪৪৫

ইসলাম

ফিলিস্তিনের সায়িদা হাতে লিখলো পুরো কোরআন

ইসলাম ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১১০ ঘণ্টা, মার্চ ৫, ২০১৭
ফিলিস্তিনের সায়িদা হাতে লিখলো পুরো কোরআন ফিলিস্তিনের রামাল্লায় বসবাসকারী ২৪ বছর বয়সী সায়িদা আক্কাদ পুরো কোরআন হাতে লিখে আলোচনার জন্ম দিয়েছে

জেরুজালেমের উত্তরে রামাল্লা শহরে ত্রিশ হাজার মানুষের বসবাস। রামাল্লা ফিলিস্তিনের সরকারি সদর দফতর। এখান থেকে ফিলিস্তিনের প্রশাসন তার কাজকর্ম করে থাকে। ফিলিস্তিনের মানুষ নানান সমস্যার মধ্য দিয়ে দিন কাটায়। তার পরও থেমে নেই তাদের পথচলা। এরই নাম জীবন।

সেই রামাল্লার এক মেয়ে প্রাত্যহিক সব কাজ ঠিক রেখে তিন বছর সময় নিয়ে পুরো কোরআনে কারিম হাতে লেখে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। ফিলিস্তিনি ওই মেয়েকে নিয়ে আরবি ভাষার কয়েকটি গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে বিষয়টি সামনে আসে।


 
ফিলিস্তিনের রামাল্লায় বসবাসকারী ২৪ বছর বয়সী সায়িদা আক্কাদ। ফিলিস্তিনের এই মেয়ে তিন বছর সময় নিয়ে পুরো কোরআনে কারিম হাতে লিখে শেষ করেছে। তার কাজে প্রতিবেশীরা অবাক। এখন তাকে নিয়ে চলছে তুমুল আলোচনা। সেটা দেখতে লোকজন ভীড় জমাচ্ছে সায়িদাদের বাড়ীতে।  
 সায়িদা আক্কাদের হাতে লেখা কোরআন
সায়িদা আক্কাদ পড়াশুনা থেকে শুরু করে প্রাত্যহিক সব কাজ ঠিক রেখে দীর্ঘ পবিত্র কোরআনের পাণ্ডুলিপি লিখে শেষ করেছেন।  

সায়িদা আক্কাদ ২০১৪ সালে কোরআন শরিফ লেখার কাজ শুরু করেন। তিন বছর পর তার এই কাজ সম্পন্ন হয়। সায়িদার বাবা রামাল্লায় ফলের ব্যবসা করেন। সায়িদা পরিবারের বড় মেয়ে।
 
নিছক শখের বশে হাতে কোরআন লিখেছে বলে জানান সায়িদা।

তার ভাষায়, ফিলিস্তিনের তো আর সমস্যা কম নয়। ইসরায়েলের কাছ থেকে অধিকৃত এলাকা ফিরে পেতে চলছে স্বাধীনতার সংগ্রাম। এরই মাঝেই আমাদের সব কাজ করতে হয়। ইচ্ছে হলেই ঘর থেকে বের হওয়া যায় না। তাই অবসর সময়টা কাজে লাগানোর জন্য আমি কোরআন হাতে লেখার কাজ শুরু করি। আর দেখতে দেখতে কাজটি শেষও হয়ে যায়।  

ইসলাম বিভাগে লেখা পাঠাতে মেইল করুন: [email protected]

বাংলাদেশ সময়: ১৭১১ ঘণ্টা, মার্চ ০৫, ২০১৭
এমএইউ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।