ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ বৈশাখ ১৪৩১, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

ইসলাম

২ হাজার ‘শহীদ’ পরিবারকে হজে আপ্যায়ন করবেন সৌদি বাদশাহ

ইসলাম ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০১৯ ঘণ্টা, জুলাই ২৯, ২০১৯
২ হাজার ‘শহীদ’ পরিবারকে হজে আপ্যায়ন করবেন সৌদি বাদশাহ সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ। ছবি: সংগৃহীত

সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ প্রতি বছর হজের সময়ে বিভিন্ন দেশের মানুষের আতিথেয়তা-মেহমানদারি করেন। আসন্ন হজ মৌসুমেও নির্দিষ্ট সংখ্যক হজযাত্রীর আপ্যায়নের ব্যবস্থার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। নির্দেশনা অনুযায়ী ইয়েমেনের বৈধ সরকার পুনরুদ্ধারের লড়াইয়ে শহীদ ইয়েমেনি সেনাবাহিনীর দুই হাজার পরিবারের সদস্যদের (এ বছর হজের সময়ে) আতিথেয়তা করবে সৌদি। খবর আরবনিউজের।

সৌদি আরবের ইসলামী ব্যবস্থাপনা, দাওয়াহ্ ও পথনির্দেনা মন্ত্রনালয়ের তত্ত্বাবধানে ইয়েমেনি দুই হাজার শহিদ পরিবারের সদস্যদের যাবতীয় আপ্যায়ন করা হবে। এটি সৌদির ‘হজ ও ওমরাহ অতিথি কর্মসূচি’র অংশ হিসেবেও গণ্য।

ইসলামিক বিষয়ক মন্ত্রী শেখ আবদুল্লাতিফ আল-আশশেইখ সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ইয়েমেনের বৈধ সরকারকে সমর্থনকারী আরব জোটের অংশ হিসাবে ‘নির্ধারণ ঝড় ও প্রত্যাশা পুনরুদ্ধার’ অভিযানে অংশ নেওয়ার সময় যারা মারা গিয়েছিল, তাদের পরিবারের সদস্যরা শহিদদের কীর্তির আখ্যা পাবেন। পাশাপাশি দেশে ঐক্য ও সুরক্ষা ফিরিয়ে আনার জন্য কর্মীদের দ্বারা ত্যাগ স্বীকারের সম্মান পাবেন।

এর আগে সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ ইসরায়েলি নির্যাতনের শিকার ফিলিস্তিনি শহিদদের পরিবারের এক হাজার সদস্যকে সরকারি তত্ত্বাবধানে হজের ব্যবস্থা করার আদেশ দিয়েছেন। ফিলিস্তিনিদের একটি দল সৌদির উদ্দেশ্যে যাত্রাও করেছে দুই দিন আগে।

ফিলিস্তিনের নির্বাচিত হজযাত্রীদের তত্ত্বাবধানে থাকবেন সৌদির ইসলামবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী আবদুল লতিফ আল-আশশেইখ। তাদের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশে সৌদি বাদশাহর এমন উদারতার প্রশংসা করেন আবদুল লতিফ। নির্বাচিত সদস্যরা মিসর ও জর্ডানের দূতাবাসের অনুমতি নিয়ে হজে আসতে যাবতীয় কাজ দ্রুত সম্পন্ন করা হবে বলেও জানান তিনি।

বিস্তারিত পড়ুন: এক হাজার ফিলিস্তিনিকে হজ করাবেন সৌদি বাদশাহ

এছাড়াও নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে হতাহতদের ২০০ আত্মীয়কে হজ করাবে সৌদি সরকার। তাদের হজের আসা-যাওয়া ও থাকাকালীন যাবতীয় খরচ বহন করবে সৌদি। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়।

সৌদি আরবের দাওয়াহ, নির্দেশনা ও ইসলামবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ড. শাইখ আবদুল লতিফ আল-শেইখ বলেন, সন্ত্রাসবাদ ও অপরাধীদের মোকাবেলার জন্য আমরা এসব ভাই-বোনদের আমন্ত্রণ জানিয়েছি। মূলত তাদের মনোকষ্ট দূর করতে এবং সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সৌদি আরবের সংগ্রাম অব্যাহত রাখার অংশ হিসেবে সরকার এই উদ্যোগ নিয়েছে।

বিস্তারিত পড়ুন: ক্রাইস্টচার্চে হতাহতদের পরিবারের ২০০ জনকে হজ করাবে সৌদি

ইসলাম বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। লেখা পাঠাতে মেইল করুন: [email protected]

বাংলাদেশ সময়: ২০১৯, জুলাই ২৮, ২০১৯
এমএমইউ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।