ঢাকা, বুধবার, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ইচ্ছেঘুড়ি

বড়দিনের আনন্দ

মীম নোশিন নাওয়াল খান, নিউজরুম এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৫৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৪
বড়দিনের আনন্দ ছবি : রেহানা /বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বড়দিন খ্রিষ্টধর্মবালম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব। প্রতিবছর ২৫ ডিসেম্বর, অর্থাৎ যীশু খ্রিষ্টের জন্মদিনে বড়দিন উদযাপিত হয়।

বিশ্বজুড়ে মহাধুমধাম, আনন্দ ও বিশেষ আয়োজনের মধ্য দিয়ে উদযাপিত হয় বড়দিন।

বড়দিন বলতেই আমরা বুঝি সুসজ্জিত ক্রিমসাস ট্রি আর সান্তা ক্লজ। ক্রিসমাস ট্রি বড়দিন উদযাপনের একটি প্রধান অনুষঙ্গ। রঙিন বাতিসহ বিভিন্ন জিনিস দিয়ে ক্রিসমাস ট্রি সাজানো হয়। তার নিচে রাখা থাকে উপহার।

ক্রিসমাস ট্রি যথেষ্ট আকর্ষণীয় হলেও ক্রিসমাস ডে বা বড়দিনের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ সম্ভবত সান্তা ক্লজ। সান্তা লাল-সাদা পোশাক ও টুপি পরিহিত একজন বৃদ্ধ ব্যক্তির কাল্পনিক চরিত্র, যিনি রেইন্ডিয়ারে টানা রথে চড়ে বিশ্বের সব ভালো শিশুদেরকে বড়দিনের উপহার দিয়ে যান। সান্তা ক্লজ কাল্পনিক চরিত্র হলেও অনেকেই শিশুদের আনন্দ দেওয়ার জন্য সান্তা সেজে কাঁধে উপহারের ঝুলি নিয়ে শিশুদের মাঝে চকলেট, ক্যান্ডিসহ বিভিন্ন উপহার বিতরণ করেন। এ বিষয়টি বড়দিনের আনন্দ অনেকগুন বাড়িয়ে দেয়।

বড়দিনের আরেকটি আনন্দ হচ্ছে উপহারের মোজা। ব্যাপারটা অদ্ভুত শোনালেও সত্যি। বিভিন্ন দেশের শিশুরা বড়দিনের আগের রাতে তাদের বিছানার পাশে একটা রঙিন মোজা ঝুলিয়ে রাখে। পরদিন সকালে সেই মোজার ভেতরে পাওয়া যায় মজার মজার ক্যান্ডি কিংবা চকলেট।

এছাড়াও বিভিন্ন দেশে বড়দিন উদযাপনের বিভিন্ন রীতির প্রচলন রয়েছে। নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে আনন্দের সঙ্গে উদযাপিত হয় এ দিনটি। শুধু খ্রিষ্টধর্মবালম্বী নয়, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই ভাগাভাগি করে নেয় বড়দিনের আনন্দ।

আজ বড়দিন। তোমরাও আজ অনেক আনন্দ করো। তোমাদের সবাইকে বড়দিনের অনেক শুভেচ্ছা।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa