ঢাকা, শনিবার, ৩০ চৈত্র ১৪৩০, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩ শাওয়াল ১৪৪৫

ইচ্ছেঘুড়ি

স্মরণ

তারুণ্যের কবি সুকান্ত ভট্টাচার্য

মীম নোশিন নাওয়াল খান, নিউজরুম এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৩২ ঘণ্টা, আগস্ট ১৫, ২০১৫
তারুণ্যের কবি সুকান্ত ভট্টাচার্য ছবি: সুকান্ত ভট্টাচার্য

বাংলা সাহিত্যের এক পরিচিত ও উজ্জ্বল নাম সুকান্ত ভট্টাচার্য। তার ‘যে শিশু ভূমিষ্ঠ হলো আজ রাত্রে/ তার মুখে খবর পেলুম, সে পেয়েছে ছাড়পত্র এক’ কিংবা হিমালয় থেকে সুন্দরবন হঠাৎ বাংলাদেশ/ কেঁপে কেঁপে ওঠে পদ্মার উচ্ছ্বাসে..’ প্রভৃতি এক নিশ্বাসে পড়ে ফেলার মতো এ কবিতাগুলো পড়েই বেড়ে উঠেছে সবাই।



১৯২৬ সালের ১৫ আগস্ট কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন সুকান্ত। তার বাবা নিবারণ ভট্টাচার্য ও মা সুনীতি দেবী।

১৯৪৫ সালে প্রবেশিকা পরীক্ষায় অকৃতকার্য হন সুকান্ত। একই সময়ে ছাত্র আন্দোলন ও বামপন্থী রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় তার শিক্ষাজীবনের সমাপ্তি ঘটে। তবে সাহিত্যের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। কমিউনিস্ট পার্টির পত্রিকা ‘দৈনিক স্বাধীনতা’-এর ‘কিশোর সভা’ বিভাগের সম্পাদক সুকান্ত।

তিনি ছিলেন মার্কসবাদী চেতনায় বিশ্বাসী একজন কবি। তার কবিতা খুব সহজেই পাঠকের হৃদয় জয় করে নেয়। প্রতিভাবান এ কবি তার কবিতার মাধ্যমে বাংলা সাহিত্যে স্বতন্ত্র অবস্থা তৈরি করে নেন।

ক্ষণজন্মা এই কবি দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে ১৯৪৭ সালের ১৩ মে কলকাতায় মৃত্যুবরণ করেন।

তার উল্লেখযোগ্য রচনাবলীর মধ্যে রয়েছে ছাড়পত্র, পূর্বাভাস, মিঠেকড়া, ঘুম নেই, হরতাল, গীতিগুচ্ছ প্রভৃতি।

আজ ১৫ আগস্ট, বাংলা সাহিত্যের গুরুত্বপূর্ণ কবি সুকান্ত ভট্টাচার্যের জন্মদিন। অল্প সময়ে তার অসাধারণ সৃষ্টির মাধ্যমে বাংলা সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করে গেছেন সুকান্ত ভট্টাচার্য। তার প্রতি আমাদের শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা।

বাংলাদেশ সময়: ১৩২৮ ঘণ্টা, আগস্ট ১৫, ২০১৫
এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।