ঢাকা, বুধবার, ৪ বৈশাখ ১৪৩১, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭ শাওয়াল ১৪৪৫

ইচ্ছেঘুড়ি

শাড়ি | রনি গমেজ

ছড়া/ইচ্ছেঘুড়ি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৫
শাড়ি | রনি গমেজ

রমজানের পরে এলো কোরবানির ঈদ
সে চিন্তায় এখন আমার মাথা নেই যে ঠিক।

বউ ছেলেমেয়েদের এতো সব বায়না,
কীভাবে করবো পূরণ কেউতো আর বোঝে না।



তবুও কষ্ট করে কিনেছি ছেলেমেয়ের কাপড়
হিসেবের চেয়ে বেশি যেন বাজেটের উপর কামড়।

বাকী রয়ে গেছে বউয়ের একটি শাড়ি,
দশ দোকান ঘুরে চলেছে দাম কষাকষি।

এমন সময় আসল বউয়ের ফোন
জিজ্ঞেস করে বাড়ি ফিরবো কখন।

বলে দিয়েছি রাস্তায় পড়েছি জ্যামে
এছাড়া কোনো কথা আসে না যে মনে।

পেলাম না ঈদে কোনো বোনাস
এখানেই হয়ে গেলো আমার সর্বনাশ।

যদি কিনি এখন বউয়ের সেই শাড়ি
কীভাবে কিনব বাকি সব তরকারি।

সব চিন্তা ফেলে দিয়ে
করলাম বউকে আবার ফোন,
কথা শোনে বউ আমার
বুঝতে পারলো আমার মন।

বউ বললো আমায় তখন
কীভাবে বলি তোমায় এখন,

লাগবে নাকো আমার দামি শাড়ি
দেরি না করে ফিরে এসো তাড়াতাড়ি বাড়ি।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৫
এসএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।