ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

আইন ও আদালত

পদত্যাগ না করা ২ ইউপি চেয়ারম্যান উপজেলা নির্বাচনে থাকছেন: হাইকোর্ট

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯০৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৪, ২০২৪
পদত্যাগ না করা ২ ইউপি চেয়ারম্যান উপজেলা নির্বাচনে থাকছেন: হাইকোর্ট

ঢাকা: ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) থেকে পদত্যাগ না করায় উপজেলা নির্বাচনে দুই চেয়ার‌ম্যানের মনোনয়নপত্র বাতিলে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

ফলে ইউপি চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ না করেই এ দুই চেয়ারম্যানের উপজেলা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আইনত কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবী।

মনোনয়নপত্র বাতিলের সিদ্ধান্তের বৈধতা নিয়ে পৃথক রিটের প্রাথমিক শুনানি শেষে মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মো. বজলুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ আদেশ দেন।

আদালতে রিট আবেদনকারীদের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী শাহদীন মালিক ও এম মনজুর আলম। নির্বাচন কমিশনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী তৌহিদুল ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল এম এম জি সারোয়ার।

দুই চেয়ারম্যান হলেন, সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার মোগলাবাজার ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম। তিনি দক্ষিণ সুরমা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন।  

অপরজন হলেন কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার ওসমানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ওহিদুল ইসলাম। তিনি খোকসা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন।

আইনজীবী শাহদীন মালিক জানান, তারা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে পদত্যাগ না করে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। নির্বাচন কমিশনের রিটার্নিং অফিসার ও আপিল কর্তৃপক্ষ তাদের নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করেছেন। এর বিরুদ্ধে তারা রিট করলেন। কারণ ইউপি চেয়ারম্যানরা পদত্যাগ করতে বাধ্য নন। আদালত আদেশ দিলেন তারা ইউপি চেয়ারম্যান পদে থেকে আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন। তাদের মনোনয়ন হাইকোর্ট বৈধ ঘোষণা করেছেন। এখন এটা সবার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হওয়ার কথা বলে মনে করছেন এ আইনজীবী।

ওই দুই উপজেলায় আগামী ৮ মে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০৯০২ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৪, ২০২৪
ইএস/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।