ঢাকা, রবিবার, ২ আষাঢ় ১৪৩১, ১৬ জুন ২০২৪, ০৮ জিলহজ ১৪৪৫

আইন ও আদালত

মিরপুরে অটোরিকশাচালকদের অবরোধ-ভাঙচুর: ৪২ জন কারাগারে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১৬ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২৪
মিরপুরে অটোরিকশাচালকদের অবরোধ-ভাঙচুর: ৪২ জন কারাগারে

ঢাকা: রাজধানীর মিরপুরে অটোরিকশাচালকদের সড়ক অবরোধ, অগ্নিসংযোগ, বাস ভাঙচুর ও পুলিশকে মারধরের অভিযোগে পৃথক তিন থানার মামলায় গ্রেপ্তার ৪২ জনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সোমবার (২০ মে) ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের তিনজন বিচারক পৃথক আদেশে তাদের কারাগারে পাঠান।

কারাগারে যাওয়া আসামিরা হলেন অনিক, আবু বক্কর, আলী হোসেন, সাগর মৃধা, সাগর শেখ, বকুল হোসেন, নুরুল ইসলাম, মাজেদ আলী, মোতাহার হোসেন, দুলু মিয়া ওরফে বুলু, নবী হোসেন, শাহাবুদ্দিন, নুরুল আমন, জুনায়েদ, জাকির হোসেন, ফকরুল ইসলাম, কামাল মিয়া, আল আমিন মিয়া, সুপ্ত রায়, ওসমান গণি, শাকিল হোসেন, আব্দুল হামিদ, আজিজুল হক, আমির, শহিদুল ইসলাম, জহুরুল ইসলাম, রাসেল, রানা চৌধুরী, রাসেল, জাকির হোসেন, মেহেদী হাসান, আব্দুল মোতালেব, মোরসালিন মিয়া, শাহজাহান মিয়া, রাসেল, ওয়াজিব, আনোয়ার হোসেন, আতাউর রহমান, সুমন, নুর মোহাম্মদ ও শরীফ।

এদের মধ্যে প্রথম ১৫ জন মিরপুর মডেল থানার মামলার আসামি। এদিন তাদের আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মিরপুর মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সজিবুর রহমান। শুনানি শেষে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মইনুল ইসলাম তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

পরবর্তী ১২ জন কাফরুল থানার মামলার আসামি। এদিন তাদের আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কাফরুল উপপরিদর্শক (এসআই) রিয়াজুল ইসলাম রানা শেখ। তাদের পক্ষে আইনজীবী জামিন আবেদন করেন। আইনজীবীর নিবেদন মতে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আক্তারুজ্জামান আগামী ২৩ মে জামিন শুনানির দিন রেখে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

শেষের ১৫ জন পল্লবী থানার মামলার আসামি। এদিন তাদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পল্লবী থানার উপপরিদর্শক  (এসআই) পার্থ মল্লিক। আসামিদের পক্ষে আইনজীবী জামিন আবেদন করেন। ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শাকিল আহাম্মদ আইনজীবীর নিবেদন মতে আগামী ২৩ মে জামিন শুনানির দিন ধার্য করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।  

ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চলাচল বন্ধের প্রতিবাদে রোববার (১৯ মে) আগারগাঁও, মিরপুর-১, ১০ ও আশপাশের এলাকায় চালকরা রাস্তায় নেমে সড়ক অবরোধ করেন। পরে পুলিশ তাদের ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলে ওই এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। একপর্যায়ে বিক্ষুব্ধ রিকশাচালকরা সড়কে বসে বিক্ষোভ ও পরে বিভিন্ন যানবাহনে ভাঙচুর করেন। মিরপুরের কালশীতে ট্রাফিক পুলিশ বক্সে আগুন দেন তারা।  

সড়ক অবরোধ, অগ্নিসংযোগ, বাস ভাঙচুর ও পুলিশকে আহত করার অভিযোগে পুলিশ বাদী হয়ে মিরপুর মডেল থানায় একটি, পল্লবী থানায় দুটি ও কাফরুল থানায় একটি মামলা করেছে। চার মামলায় আসামি করা হয়েছে প্রায় ২ হাজার ৫০০ জনকে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৬ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২৪
কেআই/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।