ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

আইন ও আদালত

ঢাকা-চট্টগ্রামের তিন আইনজীবীর সনদ বাতিল

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৮, ২০১৬
ঢাকা-চট্টগ্রামের তিন আইনজীবীর সনদ বাতিল

ঢাকা: পেশাগত অসদাচরণের জন্য দোষী প্রমাণিত হওয়ায় তিন আইনজীবীকে আইন পেশা থেকে স্থায়ীভাবে অপসারণ করেছে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল।

মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) বার কাউন্সিলের ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ অফিসার কর্তৃক পাঠানো পৃথক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা যায়।

স্থায়ীভাবে অপসারিত হওয়া তিন আইনজীবী হলেন- ঢাকা আইনজীবী সমিতির সদস্য মিনারা খাতুন লাকি, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য মো. শফিউল আজম চৌধুরী ও মো. তসলিম উদ্দিন।

এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মোসাম্মত বিউটি নামের এক নারী মিনারা খাতুনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন, মিনারা খাতুন বিউটির স্বামীকে একটি মামলায় জামিন করিয়ে দেবেন বলে ভুয়া, বানোয়াট ও সাজানো জামিননামা এবং রিলিজ আদেশ তৈরি করে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের উদ্দেশ্যে প্রতারণা করেছেন।

বিষয়টি সন্দেহতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় ১৫ অক্টোবর (শনিবার) বার কাউন্সিলের ৫ নম্বর ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান মো.পারভেজ আলম খান ও সদস্য মো.মাসুদ সালাউদ্দিন মিনারা খাতুন লাকীকে আইন পেশা হতে স্থায়ীভাবে অপসারণের রায় দেন।

অপর বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মো. মোসাদ্দেক চৌধুরী নামের এক ব্যক্তি চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য মো. শফিউল আজম চৌধুরী ও মো. তসলিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন, একটি নালিশি সম্পত্তি বিষয়ে বাদীর আইনজীবী থাকা এবং মামলাটি বিচারাধীন থাকা অবস্থায় ওই দুই আইনজীবী সম্পত্তিটি পরস্পর যোগসাজশে নিজ ও স্ত্রীদের নামে রেজিস্ট্রেশন বায়নানামা তৈরি করেন।

বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় ১৫ অক্টোবর (শনিবার) বার কাউন্সিলের এক নম্বর ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যানের মো. ইয়াহিয়া ও সদস্য মো.পারভেজ আলম খান ওই দুই আইনজীবীকে আইন পেশা হতে স্থায়ীভাবে অপসারণের রায় দেন।

আইন অনুসারে বার কাউন্সিলের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আইনজীবীরা হাইকোর্টে আপিল করতে পারবেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৮, ২০১৬
ইএস/জিপি/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa