ঢাকা, শুক্রবার, ৬ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

আইন ও আদালত

ফাঁসির দণ্ডাদেশ বহাল যাদের

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৩৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০১৭
ফাঁসির দণ্ডাদেশ বহাল যাদের হাইকোর্ট ফাইল ছবি

ঢাকা: ২০০৯ সালে পিলখানায় বিডিআর সদর দপ্তরে ৫৭ জন সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪ জনকে হত্যার অভিযোগে ১৩৯ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট। যদিও বিচারিক আদালত ১৫২ জনকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছিলেন।

১৫২ জনের মধ্যে বিচার চলাকালেই মৃত্যুবরণ করেন ডিএডি মীর্জা হাবিবুর রহমান। ৮ জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ কমিয়ে যাবজ্জীবন এবং ৪ জনকে খালাস দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি মো.শওকত হোসেনের নেতৃত্বে তিন বিচারপতির বিশেষ বেঞ্চ এ রায় দেন।

যাদের মৃত্যুদণ্ড বহাল রয়েছে তারা হলেন
ডিএডি তৌহিদুল আলম, ডিএডি মো. নাছির উদ্দিন খান, ডিএডি আ. জলিল, সিপাহি মো. সেলিম রেজা, সিপাহি মো. শাহ আলম, সুবেদার মেজর গোফরান মল্লিক, সিপাহি এসএম আলতাফ হোসেন, সিপাহি মো. সাজ্জাদ হোসেন, সিপাহি মো. কাজল আলী, সিপাহি মো. আব্দুল মতিন।

ল্যান্স নায়েক মো. শাহ আলম, হাবিলদার মো. আবু তাহের, সিপাহি মো. আজিম পাটোয়ারী, সিপাহি মো. রেজাউল করিম,সিপাহি রফিকুল ইসলাম, সিপাহি মো. মিজানুর রহমান রুস্তম, ল্যান্স নায়েক (সিগন্যাল) মো. জাকারিয়া মোল্লা, ল্যান্স নায়েক মো. শাহাবুদ্দিন,ল্যান্স নায়েক মো. আব্দুল করিম।

সিপাহি মো. হাবিবুর রহমান, সিপাহি  মো. জিয়াউল হক,সিপাহি রুবেল মিয়া, হাবিলদার সহকারী খন্দকার মনিরুজ্জামান,সিপাহি মো. আজাদ খান

সিপাহি খন্দকার শাহাদত, সিপাহি মো. এমরান চৌধুরী, ল্যান্স. নায়েক মো. ইকরামুল ইসলাম, সিগন্যালম্যান মো. আবুল বাশার, সিপাহি মো. আইয়ুব আলী।

সিপাহি মো. ওবায়দুল ইসলাম, সিপাহি মো. শামীম আল মামুন জুয়েল, সিপাহি মো. সিদ্দিক আলম, সিপাহি মো. আমিনুল ইসলাম, সিপাহি মো. সাইফুল ইসলাম, সিপাহি মো. রিয়ান আহাম্মদ, সিপাহি মো. রাজিবুল হাসান,সিপাহি মো. সুমন মিয়া, সিপাহি মো. হারুনর রশিদ মিয়া, সিপাহি মো. আতোয়ার রহমান।

সিপাহি মো. ইব্রাহিম, সিপাহি মো. কামাল মোল্লা, সিপাহি মো. আব্দুল মুহিত, সিপাহি মো. রমজান আলী, সিপাহি মো. শাহীন, না. সুবেদার শাহজাহান আলী, হাবিলদার মো. ইউসুফ আলী, সিপাহি মো. বজলুর, ল্যান্স নায়েক  মো. আনোয়ারুল ইসলাম,হাবিলদার জালালউদ্দিন আহমেদ।

সিপাহি মো. আলিম রেজা, হাবিলদার শাহজালাল, জেসিও সুবেদার মো. খন্দকার একরামুল হক, জেসিও নায়েব সুবেদার মো. সাইদুর রহমান, জেসিও সুবেদার মো. শাহিদুর রহমান, জেসিও নায়েব সুবেদার মো. আজিজ মিয়া,সিপাহি মো. কাজী আরাফাত হোসেন, সিপাহি মো. হায়দার আলী, সিপাহি মো. আবুল বাশার, জেসিও নায়েব সুবেদার মো. ফজলুল করিম।

হাবিলদার মো. আনিসুজ্জামান, সিপাহি মতিউর রহমান, নায়েক (সিগন্যাল) মো. ওয়াজেদুল ইসলাম, সিগন্যাল ম্যান মো. মনির হোসেন, সিপাহি মো. মনিরুজ্জামান, নায়েক মো. আবু সাঈদ, সিপাহি মো. তারিকুল ইসলাম, নায়েব সুবেদার ওয়ালি উল্ল্যাহ, সিপাহি মো. হারুন অর রশিদ, সিপাহি মো. আতিকুর রহমান।

সিপাহি ড্রাইভার মো. হাবিবুর রহমান, হাবিলদার চালক মো.আবদুস সালাম খান, সিপাহি মো. তারিকুল ইসলাম, হাবিলদার মাসুদ ইকবাল, নায়েক মো. আব্দুল কাইয়ুম, হাবিলদার মো. আক্তার আলী, হাবিলদার মো. শফিকুল ইসলাম, নায়েব সুবেদার আবুল খায়ের, হাবিলদার মো. জাকির হোসেন, সিপাহি  সাইফুল ইসলাম।

হাবিলদার মেডিকেল সহকারী মো. আবুল বাসার, জেসিও সুবেদার মো. ইউসুফ আলী খান, জেসিও নায়েব সুবেদার মো. তোরাব হোসেন, নায়েক মো. নজরুল ইসলাম, হাবিলদার মো. হুমায়ুন কবির (সুধীর), হাবিলদার মো. ওমর আলী, সিপাহি রাজু মারমা, সিপাহি আল মাসুম, নায়েক মো. শফিকুল ইসলাম ওরফে শফি, হাবিলদার জসিম উদ্দিন।

সিপাহি মো. জিয়াউল হক, সিপাহি মো. ওয়াহিদুল ইসলাম, নায়েক ফিরোজ মিয়া, সিপাহি মো. শাহীনুর আল মামুন, নায়েক মো. নুরুল ইসলাম, নায়েক শেখ মো. শাহিদুর রহমান,সিপাহি মো. মহসিন আলী, সিপাহি এস এম সাইফুজ্জামান, সিপাহি উত্তম বড়ুয়া, জেসিও নায়েব সুবেদার মো. কবির উদ্দিন।

নায়েব সুবাদার আবদুল বাতেন, সিপাহি এস এম রেজওয়ান আহম্মেদ,সিপাহি মো. নাজমুল হোসাইন, জেসিও সুবেদার মো. আব্দুল বারী, সিপাহি মো. আমিনার রহমান, সিপাহি মো. জাহিদুল ইসলাম, সিপাহি রাখাল চন্দ্র,নায়েক মো. রফিকুল ইসলাম, সিপাহি মো. এরশাদ আলী, ল্যান্স নায়েক মো. হাবিবুল্লাহ বাহার।

নায়েক চালক মো. নজরুল ইসলাম, নায়েক মো. আসাদুজ্জামান, সিপাহি মো. মাইন উদ্দিন, সিপাহি হাসিবুল হাসান, সিপাহি রেজাউল করিম, সিপাহি পল্টন চাকমা, সিপাহী মিজানুর রহমান, সিপাহি মো. মুকুল আলম, সিপাহি মো. বাকী বিল্ল্যাহ, সিপাহি মো.নুরুল আলম।

ল্যান্স নায়েক হামিদুল ইসলাম, সিপাহি আনিসুর রহমান, সিপাহি মকবুল হোসেন, সিপাহি মো. সালাউদ্দিন, ল্যান্স নায়েক মো. রেজাউল করিম,ডিএডি মো. নুরুল হুদা, নায়েক সুবেদার মো. ইসলাম উদ্দিন, ল্যান্স নায়েক মোজাম্মেল, হাবিলদার দাউদ আলী বিশ্বাস, সিপাহি জসিম উদ্দিন।

নায়েক শাহী আক্তার, ল্যান্স নায়েক মজিবর রহমান, ল্যান্স নায়েক আনোয়ার হোসেন, ল্যান্স নায়েক হাসনাত কামাল, ল্যান্স নায়েক সহকারী ইমদাদুল হক, ল্যান্স নায়েক সহকারী সেলিম মিয়া, ল্যান্স নায়েক সহকারী নজরুল ইসলাম, হাবিলদার বেলায়েত হোসেন, সিপাহী আবুল কালাম আজাদ।

যাবজ্জীবন দণ্ডিতরা হলেন
জাকির হোসেন, সিপাহি মো. রমজান আলী, এমএলএসএস সাইফুদ্দিন মিয়া, ল্যান্স নায়েক মো. মোজাম্মেল হক, নায়েক সুবেদার মনোরঞ্জন সরকার, নায়েক চালক মো. আলী হোসেন, সিপাহি মো. কামরুল হাসান, সিপাহি মো. সেলিম।

আর যে চারজন খালাস পেলেন তারা হলেন
হাবিলদার মো. খায়রুল আলম, জেসিও নায়েব সুবেদার মো. আলী-খালাস, হাবিলদার মো. বিল্লাল হোসেন খান, সিপাহি মো. মেজবাহ উদ্দিন।

**‘এমন রায় প্রত্যাশা করিনি’
**বিডিআর হত্যাযজ্ঞে ১৩৯ জনের ফাঁসি বহাল 
**বিডিআর হত্যাযজ্ঞের মূল রায় ঘোষণা চলছে
**‘বিডিআর থেকে আর্মি অফিসারদের রিমুভ করতেই এ ঘটনা’
**বিডিআর হত্যাযজ্ঞের মূল রায় ঘোষণা আড়াইটা থেকে

বাংলাদেশ সময়: ১৮২২ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০১৭
ইএস/জেএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad
welcome-ad