ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ জুলাই ২০২২, ০০ জিলহজ ১৪৪৩

আইন ও আদালত

১২ বছর পর ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৪ ঘণ্টা, মে ২৪, ২০২২
১২ বছর পর ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁওয়ে ২০১০ সালের একটি ধর্ষণ মামলায় আসাদুজ্জামান ওরফে রিজভী নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৪ মে) ঠাকুরগাঁও নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক (ঠাকুরগাঁও জেলা ও দায়রা জজ) মো. গোলাম ফারুক এ রায় দেন। সাজাপ্রাপ্ত রিজভী রানিশংকৈল উপজেলার করনাইট গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১০ সালে ঠাকুরগাঁও জেলার রানীশংকৈল উপজেলার একটি মেয়ে ঠাকুরগাঁও পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে লেখাপড়া করার সময় পৌর শহরের একটি মেসে থাকতেন। পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে ২০১০ সালের ২৭ মে রিজভী মেয়েটিকে শহরের টাংগন ব্রিজে ডাকেন। মেয়েটি সেখানে গেলে তাকে সোফা কেনার কথা বলে মোটরসাইকেলে করে দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জে নিয়ে যান তিনি। পরে আবার কৌশলে মেয়েটিকে মোটরসাইকেলে করে ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জে ও পরে রানীশংকৈলের খন্দকার হাই আবাসিক হোটেলে নিয়ে ধর্ষণ করে মেসে দিয়ে যান তিনি।  

পরে মেয়েটি এ কথা তার বাবাকে জানালে তার বাবা পরদিন রিজভীকে বিচার মিমাংসার কথা বলেন। কিন্তু রিজভী মিমাংসার পথে না আসায় ২০১০ সালের ২৯ মে ভুক্তভোগী মেয়েটি রানীশংকৈল থানায় এ মামলাটি দায়ের করেন।

দীর্ঘ শুনানি শেষে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় মঙ্গলবার এ রায় দেন আদালত।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৩ ঘণ্টা, মে ২৪, ২০২২
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa