ঢাকা, বুধবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

লাইফস্টাইল

চাই ঝলমলে সুন্দর চুল?

লাইফস্টাইল ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৩ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০১১
চাই ঝলমলে সুন্দর চুল?

‘ঘোমটা মাথায় ছিল না তার মোটে। মুক্ত বেণী পিঠের পরে লোটে’-চরণ দু’টি রবীন্দ্রনাথের কৃষ্ণকলি গানের থেকে উৎকলিত।

এখানে কালো মেয়ের স্তুতি গান যেমন গাওয়া হয়েছে তেমন গাওয়া হয়েছে তার চুলের স্তুতি।

বাইরের দেশের নারীদের কথা জানিনা তবে আমাদের দেশের নারীদের সৌন্দর্যের অন্যতম ধারক হিসেবে এখনও চুলকে বোঝানো হয়। মেয়েরা এখনও তার সৌন্দর্য চর্চায় সবচেয়ে বেশি সময় ব্যয় করে চুলের পেছনে।

তাই কালো দীঘল চুল হোক আর অফিসের কর্মব্যস্ত নারীর ছোট ছাটা কিংবা বয় কাট চুল হোক সবাই এর পেছনে সময় দিতে ব্যস্ত হয়ে থাকেন।

কারণ চুলের প্রকৃত এবং মানাসই অবস্থান আপনার ব্যক্তিত্ব কে করবে আরো পরিস্ফুটিত এবং সাবলীল।

 এখনও আমাদের সৌন্দর্যের বড় অনুসঙ্গ যেহেতু চুল। তাই চুল ছোট অথবা লম্বা যেমনই হোক তা রাখতে হবে ঝলমলে সুন্দর। কেমন করে? জেনে নিন।

চুলের যেকোনো ধরণের সমস্যায় অবহেলা না করে উপযুক্ত পরিচর্যার মাধ্যমে সমাধানের ব্যবস্থা নিন।

পরিচর্যার অভাবে চুল নিস্প্রাাণ ও রুক্ষ হয়ে যায়। নিয়মিত যতœ নিলে, চুলে হারানো সৌন্দর্য ফিরে আসে।

একদিন পরপর চুলে শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। মনে রাখবেন, চুলের জন্য শ্যাম্পু নয় ক্ষতিকর হচ্ছে ময়লা।

শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশনার লাগাতে ভুলবেন না।

নিয়মিত তেল ম্যাসাজ করতে হবে।

নিয়মিত পার্লারে চুল চর্চা সম্ভব না হলে ঘরেই প্যাক তৈরি করে ব্যবহার করুন।

সপ্তাহে একদিন মেহেদি, ডিম এবং টক দই দিয়ে প্যাক তৈরি করে মাথায় লাগিয়ে এক ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করুন।  

তেলের সঙ্গে জবাফুল এবং আমলকি দিয়ে ১০ মিনিট জ্বালান। তেল ঠান্ডা হলে ছেকে রেখে দিন। এই তেল ব্যবহারে আপনার চুল পড়া বন্ধ হবে।

শ্যাম্পু কেনার সময় ভালো ব্রান্ডের হারবাল শ্যাম্পু কিনুন।

বাইরে যাওয়ার সময় চুল খোলা না রাখাই ভালো। এতে চুলা ময়লা কম হবে, সমস্যাও কম হবে।

আকর্ষণীয় সুন্দর ঝলমলে চুল পেতে নিয়মিত পরিচর্যা করুন।

রূপসচেতন নারীদের চুল নিয়ে ভাবনার যেমন শেষ নেই, তেমনি চুল নিয়ে সমস্যারও কমতি নেই। শীত-গরম সব সময়ই এর সমস্যা লেগে থাকে। চুলের খুশকি, চুল পড়া ছাড়াও নানা ধরনের চুলের যন্ত্রণায় কম-বেশি সবাই ভুগে থাকি।

চুলে খুশকি কেন হয় : অযত্ন ও অবহেলায় চুলের খুশকির উদ্ভব হয়। এছাড়াও শুষ্ক আবহাওয়ায় ধুলাবালিও এর অন্যতম কারণ। এ সময়ে প্রচুর পরিমাণে পানি খেতে হবে। চুল পড়ে যাওয়ার আর একটি কারণ হচ্ছে পেট। তাই পেটের সমস্যা থেকে মুক্ত থাকা জরুরি।

সতর্কতা : খুশকিমুক্ত চুল পেতে নিয়মিত পরিচর্যা করতে হবে। চুল সব সময় পরিষ্কার রাখতে হবে এবং সঙ্গে, চিরুনি, ব্রাশ, তোয়ালে, বালিশের কভার, বিছানার চাদর এগুলো পরিষ্কার রাখতে হবে। কখনোই অন্যের জিনিস ব্যবহার করা ঠিক হবে না। এমনকি নিজের জিনিসও ব্যবহার করতে দেয়াটা ঠিক হবে না। ব্যস্ততার কারণে যারা নিয়মিত চুলের পরিচর্যা করতে পারেন না তারা মাসে অন্তত ২ বার পার্লারে গিয়ে হেয়ার ট্রিটমেন্ট করাতে পারেন। পার্লারে গিয়ে হেয়ার স্পা করাতে পারেন। ঝলমলে চুল পেতে এই ট্রিটমেন্টগুলো জরুরি।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa