ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আশ্বিন ১৪৩০, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

‘পাওনা টাকা চাওয়ার গল্প’ সাজিয়ে ছিনতাই-হত্যা, গ্রেপ্তার ২

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৩৮ ঘণ্টা, মে ৩০, ২০২৩
‘পাওনা টাকা চাওয়ার গল্প’ সাজিয়ে ছিনতাই-হত্যা, গ্রেপ্তার ২

সাভার, (ঢাকা): সাভারের সিঅ্যান্ডবি এলাকায় পথচারী পলাশ চন্দ্র মিস্ত্রির কাছে ছিনতাইয়ের জন্য ‘পাওনা টাকা চাওয়ার গল্প তৈরি করে’ চারজনের ছিনতাইকারী একটি চক্র। ছিনতাইকারীদের কথায় টাকাসহ মোবাইলফোন দিতে না চাইলে এলোপাতাড়িভাবে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয় পলাশকে।

এ হত্যাকাণ্ডের পাঁচ দিন পর দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি)।

মঙ্গলবার (৩০ মে) দুপুরে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেন ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ বিপ্লব।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৫ মে) রাত ৯টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সিঅ্যান্ডবি ফুটওভার ব্রিজের পশ্চিম পাশে নিচে এ ঘটনা ঘটে।

সোমবার (২৯ মে) আশুলিয়া ও সাভারের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার আসামিরা হলেন- সাভারের জিনজিরা এলাকার আব্দুল ওহাব আলীর ছেলে মনির হোসেন ওরুফে মনির কসাই (৩০) ও কলমা এলাকার বাবুল মোল্লার ছেলে হাবিব মোল্লা (২৫)। তাদের নামে এর আগেও সাভার ও আশুলিয়া থানায় পৃথক মামলা রয়েছে।

নিহত পলাশ পিরোজপুর জেলার মাঠবাড়িয়া থানার বেতমপুর গ্রামের মাখন লাল মিস্ত্রির ছেলে। তিনি আশুলিয়ার নবীনগরের জালাবাদ থেকে খেজুর বাগানের একটি পোশাক কারখানায় সিনিয়র এক্সিকিউটিভ হিসেবে কাজ করতেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৫ মে রাতে কারখানা থেকে বাড়ি ফেরার পথে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভারের সিঅ্যান্ডবি এলাকায় ফুটওভার ব্রিজের নিচে এলে চারজন ছিনতাইকারী ছিনতাইয়ের জন্য পলাশের পথরোধ করে পাওনা টাকা চাওয়ার বাহানায় একটি গল্প সাজায়। এ সময় পলাশকে চড় মারে মোবাইলফোন ছিনিয়ে নিতে যান মনির। এ সময় পলাশ বাধা দিলে এলোপাতাড়িভাবে ছুরিকাঘাত করে সব নিয়ে পালিয়ে যান মনির। স্থানীয়রা আহত পলাশকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এতে আরও বলা হয়, এ ঘটনার পর ২৬ মে সাভার মডেল থানায় একটি মামলা করেন নিহতের ভাই। পরে ঢাকা জেলার এসপি ঢাকা জেলার ডিবি উত্তরকে নির্দেশনা দিলে ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোবাশশিরা হাবিব খানের তত্ত্বাবধানে ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নেতৃত্বে আশুলিয়া ও সাভারে অভিযান পরিচালনা করে মনির ও হাবিবকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় হত্যার কাজে ব্যবহৃত ছুরি উদ্ধার করা হয়।

ওসি রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ বিপ্লব বলেন, আসামিদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।  আরও দুইজন তাদের সঙ্গে জড়িত ছিল এ কথাও জানিয়েছে আসামিরা। গ্রেপ্তারদের নামে আশুলিয়া থানায় ও সাভার থানায় কয়েকটি মামলা আছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৮ ঘণ্টা, মে ৩০, ২০২৩
এসএফ/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa