ঢাকা, শনিবার, ৩০ চৈত্র ১৪৩০, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

সাবেক স্বামীর পর চলে গেলেন চিকিৎসক লতাও

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২৪
সাবেক স্বামীর পর চলে গেলেন চিকিৎসক লতাও হাসপাতালে লতার চিকিৎসার খোঁজ খবর নিতে যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন

ঢাকা: নরসিংদী রায়পুরা উপজেলার মরজাল ইউনিয়নের নিজ বাড়িতে সাবেক স্বামী খলিলুর রহমান খলিলের সঙ্গে আগুনে দগ্ধ হওয়া চিকিৎসক লতা আক্তারও (২৯) মারা গেছেন।  

বৃহস্পতিবার বেলা দেড়টার দিকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

 

এর আগে গত সোমবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান লতার সাবেক স্বামী খলিল।

চিকিৎসক লতার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন বার্ন ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন (আরএস) ডা. তরিকুল ইসলাম।

লতার পরিবারের অভিযোগ, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি নরসিংদী রায়পুরায় লতাদের বাসায় প্রবেশ করেন সাবেক স্বামী খলিল। এরপর ঘরের দরজা আটকে লতার শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন। তিনি নিজের গায়েও আগুন ধরান।

দরজা ভেঙে তাদের উদ্ধার করে দগ্ধ অবস্থায় লতাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করানো।  

অন্যদিকে খলিল ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।  

লতার পরিবারের ভাষ্য, খলিলুর পেশায় গাড়িচালক ছিলেন। প্রেম ও বিয়ের সময় পেশার কথা গোপন করেছিলেন খলিলুর। বিয়ের পর তা জানতে পেরে বিবাহবিচ্ছেদ ঘটান লতা। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে লতার গায়ে তিনি আগুন ধরিয়ে দেন। নিজের গায়েও আগুন ধরিয়ে দেন।  

আরও পড়ুন: দগ্ধ চিকিৎসক লতাকে দেখতে গেলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২৪
এজেডএস/জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad