ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৩ জুন ২০২৪, ০৫ জিলহজ ১৪৪৫

জাতীয়

৩ কেএনএফ সদস্যের মরদেহ বান্দরবান পৌরসভায় হস্তান্তর

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪৪ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২৪
৩ কেএনএফ সদস্যের মরদেহ বান্দরবান পৌরসভায় হস্তান্তর

বান্দরবান: বন্দুকযুদ্ধে নিহত কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) তিন সদস্যের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে বান্দরবান পৌরসভা কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ না আসায় সোমবার (২০ মে) দুপুরে মরদেহ তিনটি বান্দরবান পৌরসভা কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করে পুলিশ।

পরে পৌরসভার উদ্যোগে বান্দরবানের লাইমিপাড়ায় খ্রিষ্ট্রীয় কেন্দ্রীয় শ্মশানে মরদেহগুলোর দাফন সম্পন্ন করা হয়।

বান্দরবান পৌরসভার মেয়র মো. সামসুল ইসলাম জানান, যেকোনো বেওয়ারিস মরদেহ বান্দরবানে পৌরসভার মাধ্যমে সৎকার ও দাফন সম্পন্ন হয়। এই তিনটি মরদেহগুলো নিতে পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ না আসায় পৌরসভার ব্যবস্থাপনায় লাইমিপাড়ায় শ্মশানে দাফন সম্পন্ন করেছি।

পুলিশ জানায়, মরদেহগুলো পার্বত্য এলাকার সশস্ত্র সংগঠন কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) তিনজন সদস্যের। তারা বান্দরবানের রুমা উপজেলার বাসিন্দা এডি থাং বম (২৪), রুয়াল সাং নুয়াম বম (২৩) ও রুয়াল মিন লিয়াম বম (২০)।

প্রসঙ্গত, রোববার (১৯ মে) দুপুরে বান্দরবান জেলার রোয়াংছড়ি রৌনিন পাড়ার দেবাছড়া ও রুমার পাইক্ষ্যং পাড়ার সীমান্তবর্তী এলাকার গভীর অরণ্যে পার্বত্য এলাকার সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) আস্তানার সংবাদ পেয়ে সেখানে অভিযান চালায় যৌথবাহিনীর সদস্যরা। এসময় কেএনএফ সন্ত্রাসীরা যৌথবাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে যৌথবাহিনীর সদস্যরাও পাল্টা গুলি করে। এতে কেএনএফের তিন সদস্য নিহত হন। পরে ঘটনাস্থল থেকে তিনটি দেশি বন্দুক, কার্তুজ, সামরিক পোশাক ও অন্যান্য সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তিনটি মরদেহ উদ্ধার করে রাতে বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গে নিয়ে আসে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৩ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২৪
এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।