ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৪ আগস্ট ২০২০, ১৩ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

‘ভারতে আটক আমাদের ছেলেদের ফেরত আইনা দেন’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৬-২৩ ০৭:৫৬:৪৬ পিএম
‘ভারতে আটক আমাদের ছেলেদের ফেরত আইনা দেন’

কুড়িগ্রাম: ‘ভারতে আটক আমাদের ছেলেদের ফেরত আইনা দেন। ওদের উপার্জনেই আমাদের পরিবার চলে। ওরা না থাকায় আমরা খুব কষ্টে জীবন কাটাইতেছি। দুই দেশের সরকার যেন আমাদের একটু দয়া করে।’- এভাবেই মানব বন্ধনে দাঁড়িয়ে কান্নামাখা কণ্ঠে কথাগুলো বলেন ভারতে আটক মানিক ও রেজাউলের মা মালঞ্চ বেগম। 

পাসপোর্ট, ভিসা নিয়ে ভারতে আত্মীয়ের বাড়ি বেড়াতে গিয়ে আটক ২৬ বাংলাদেশিকে ফেরতের দাবি জানিয়ে মঙ্গলবার (২৩ জুন) দুপুরে কুড়িগ্রাম শহরের কলেজ মোড়ে এ মানববন্ধন করে আটকদের পরিবার ও স্থানীয়রা। আটকরা বর্তমানে ভারতের ধুবড়ি জেলে আছেন।

 

আটকদের স্বজনরা জানান, কিছুদিন আগে  ভ্রমণ ভিসা নিয়ে ভারতে বেড়াতে যান কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার রমনা ইউনিয়নের ব্যাপারী পাড়া গ্রামের ২৬ বাসিন্দা। এরই মধ্যে ভারতজুড়ে লকডাউনে আটকে পড়া অবস্থায় তাদের অনেকেরই ভিসার মেয়াদ শেষ হয়। ওই অবস্থায় গত ৩ মে কয়েক ঘণ্টার জন্য সীমান্তের চেকপোস্ট খুলে দেওয়া হবে এমন খবরে ওই বাংলাদেশিরা জোড়হাট থেকে ধুবড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেন। সেখানেই চাপোবত থানাপুলিশ তাদের আটক করে ভারতের ধুবড়ী জেলহাজতে পাঠায়।

স্বজনরা আরও জানান, বতর্মানে তারা আটকদের নিরাপত্তা ও মানবাধিকার নিয়ে শঙ্কায় আছেন। পরিবারের উপার্জনক্ষম ওই ব্যক্তিদের কারাবন্দীত্বের কারণে তাদের স্বজনরা বর্তমানে খেয়ে না খেয়ে দিনাতিপাত করছেন। এ অবস্থায় তাদের ফিরিয়ে আনতে সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা।  

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া চিলমারী উপজেলার বাসিন্দা নাহিদ হাসান জানান, ইতিহাসে রাষ্ট্র ভাগ হয়েছে, কিন্তু আত্মীয়তা তো ভাগ হয়নি। ফলে আমাদের নিয়মিতই ভারতে আসা-যাওয়া করতে হয়। ওপারের আত্মীয়রা আসে, আমরাও যাই। পাসপোর্ট-ভিসা নিয়ে চলাচল করা হয়। পাসপোর্ট ও ভিসা নিয়ে ভারতে যাওয়া ওই দরিদ্র মানুষগুলোকে কারাগারে আটক রাখা মানবাধিকার লঙ্ঘন। রাষ্ট্রের উচিত তার নিজ দেশের নাগরিকদের ফেরত আনার ব্যবস্থা করা। আমরা মানববন্ধন থেকে এই দাবি জানাচ্ছি।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৫ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০২০
এফইএস/এইচজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa