ঢাকা, শনিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৯ জানুয়ারি ২০২২, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

জাতীয়

সিলেট চেম্বারের নির্বাচন: ২২ পরিচালক পদে লড়ছেন ৪৪ প্রার্থী 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২১ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৯, ২০২১
সিলেট চেম্বারের নির্বাচন: ২২ পরিচালক পদে লড়ছেন ৪৪ প্রার্থী  সংবাদ সম্মেলন। ছবি: বাংলানিউজ

সিলেট: চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির ২০২২-২৩ মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন আগামী ১১ ডিসেম্বর।  

ওইদিন নগরের ইউনাইটেড কমিউনিটি সেন্টারে অস্থায়ী কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

 

নির্বাচনকে ঘিরে সিলেটে ব্যবসায়ীদের মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্য বিরাজ করছে। দুটি প্যানেলে প্রার্থীরা নির্ঘুম প্রচারণা চালাচ্ছেন। ভোট চাইতে ব্যবসায়ীদের কাছে যাচ্ছেন প্রার্থীরা।

এদিকে ঐতিহ্যবাহী এই ব্যবসায়ী সংগঠনের একটি সুন্দর নির্বাচন উপহার দিতে কাজ করছে সিলেট চেম্বারের নির্বাচনী বোর্ড।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে চেম্বার বিল্ডিংয়ের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলন করে এমনটি জানালেন নির্বাচনী বোর্ডের চেয়ারম্যান আব্দুল জব্বার জলিল।

নির্বাচনকে শতভাগ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন বোর্ডের সদস্যরা।

তিনি বলেন, তফসিল অনুযায়ী ১১ ডিসেম্বর (শনিবার) ধোপাদীঘিরপাড়স্থ ইউনাইটেড কমিউনিটি সেন্টারে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ওইদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোট গ্রহণ চলবে। গণনা শেষে ওইদিনই নির্বাচনের প্রাথমিক ফলাফল ঘোষণা করা হবে। এরইমধ্যে বাছাইকালে অর্ডিনারি শ্রেণিতে একজন, আরেকজন চেম্বারের সংঘবিধি অনুযায়ী নির্বাচন করতে পারেন না বিধায় সরে দাঁড়ান। এছাড়া সোসিয়েট শ্রেণিতে ৪ জন বাদ পড়েছেন। আর ভোটার তালিকা হালনাগাদকালে ৫৪ জন ভোটার বাদ পড়েছেন।  

এ বছর নির্বাচনে ২২টি পরিচালক পদের বিপরীতে ৪টি সদস্য ক্যাটাগরি থেকে ৪৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন জানান তিনি। এরমধ্যে ট্রেড গ্রুপ ও টাউন অ্যাসোসিয়েশন শ্রেণির ৪ জন পরিচালককে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে বিধায় ওই ২টি শ্রেণিতে ভোট গ্রহণের প্রয়োজন নেই।  

বর্তমানে অর্ডিনারি শ্রেণির ১২ পদে ২৮ জন প্রার্থী এবং অ্যাসোসিয়েট শ্রেণির ৬টি পদে ১২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। এবছর নির্বাচনে অর্ডিনারি শ্রেণির ভোটার সংখ্যা ১ হাজার ৩৪৮ জন এবং অ্যাসোসিয়েট শ্রেণির ভোটার সংখ্যা ১ হাজার ২৪২ জন।

নির্বাচনে নির্বাচিত পরিচালকদের মধ্য থেকে সভাপতি, সিনিয়র সহ সভাপতি ও সহ সভাপতি পদের নির্বাচন আগামী ১৩ ডিসেম্বর তারিখে চেম্বার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে।

নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. আব্দুল জব্বার জলিল আরো বলেন, নির্বাচনে স্বচ্ছতা প্রণয়নে ভোট প্রদানে ভোটারদের জন্য আলাদা ভোটার আইডি কার্ড ইস্যু করা হয়েছে। ভোটাররা ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত অফিস চলাকালীন সময়ে নিজে উপস্থিত হয়ে মেম্বারশিপ আইডি কার্ড প্রদর্শনপূর্বক ভোটার কার্ড সংগ্রহ করতে পারবেন। নির্বাচনে সার্বিক সহযোগিতা ও নির্বাচন পরিদর্শনের জন্য ইতোমধ্যে স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, র‌্যাব, ডিজিএফআই, এনএসআই, প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সংস্থা ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদেরকে পত্র পাঠানো হয়েছে।

নির্বাচনী বোর্ডের সদস্য অ্যাডভোকেট মিছবাউর রহমান আলম ও সিলেট চেম্বারের সদস্য মো. সিরাজুল ইসলাম শামীম এ সময় উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্বে আছেন অ্যাডভোকেট ড. এম. শহীদুল ইসলাম, সদস্য অ্যাডভোকেট দিলীপ কুমার কর ও সিলেট চেম্বারের সাবেক সহ সভাপতি মো. আতিকুর রহমান লাহিন।

নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান উপস্থিত সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন এবং সিলেট চেম্বারের আসন্ন নির্বাচন সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে আয়োজনে সব মহলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৯, ২০২১
এনইউ/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa