ঢাকা, রবিবার, ২২ মাঘ ১৪২৯, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৩ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

বিয়ে বাড়িতে ভুলবশত চায়ে কীটনাশক, অসুস্থ ১২

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৪৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
বিয়ে বাড়িতে ভুলবশত চায়ে কীটনাশক, অসুস্থ ১২ ছবি: সংগৃহীত

লালমনিরহাট: লালমনিরহাটের পাটগ্রামে এক বিয়ে বাড়িতে কীটনাশক মেশানো চা পানে বিষক্রিয়ায় ১২ জন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

শুক্রবার(২৫ নভেম্বর) রাতে ওই উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের কাগজীপাড়া এলাকায় রফিকুল ইসলামের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

অসুস্থদের মধ্যে ১০ জনকে পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এরমধ্যে ৫ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। যার মধ্যে ২ জনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানান হাসপাতালটির পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাইফুল ইসলাম।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও অসুস্থরা জানান, উপজেলার কাগজিপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের বাড়িতে তার মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত বর পক্ষের অতিথিদের চা পান করানো হয়। ধারণা করা হচ্ছে- রান্নাঘরে চায়ের পাতা রাখা পাত্রের পাশে কীটনাশকের পাত্র ছিল। চা বানানোর সময় ভুলবশত চা পাতা না দিয়ে কীটনাশক মেশানো হয়েছিল। আর ওই চা পান করেই অসুস্থ হয়ে পড়েন ১২জন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি থাকা বরের বোন জাহানারা বেগম বলেন, নাস্তা ও চা খাওয়ার পরেই শরীর অসুস্থ হতে শুরু করে। কিছুক্ষণ পরে দেখি আমার পাশে থাকা বেশ কয়েকজন অসুস্থ হয়। পরে বিয়ে বাড়ির লোকজন আমাদের উদ্ধার করে পাটগ্রাম হাসপাতালে ভর্তি করেন। হাসপাতালে থাকা অবস্থায় পরে জানতে পারি বিষক্রিয়ায় আমরা অসুস্থ হয়েছি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আতাউর রহমান বলেন, কনে আমার ভাইয়ের মেয়ে  (ভাতিজি)। ভাতিজির বিয়েতে ভুলবশত এ ঘটনা ঘটেছে। রান্নাঘরে চা পাতা রাখা পাত্রের পাশে কীটনাশক বাসডিনের প্যাকেট ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বলেন, অসুস্থদের শরীরে বিষক্রিয়ার লক্ষণ স্পষ্ট হয়েছে। ১০ জনের মধ্যে ৫ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। ২ জনের অবস্থা আশংকাজনক বলে মনে হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa