ঢাকা, সোমবার, ২ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

অন্যান্য দল

জনসংহতি সমিতির একাংশের নতুন সভাপতি তাতিন্দ্র, সম্পাদক বিমল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৩৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০
জনসংহতি সমিতির একাংশের নতুন সভাপতি তাতিন্দ্র, সম্পাদক বিমল জনসংহতি সমিতির (লারমা গ্রুপ) নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক

খাগড়াছড়ি: পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির একাংশের (এমএন লারমা গ্রুপ) ১২তম জাতীয় সম্মেলনে নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) চারদিনের সম্মেলন শেষে নতুন এ কমিটির ঘোষণা করা হয়। নতুন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন তাতিন্দ্র লাল চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন বিমল কান্তি চাকমা।

২৫ সদস্যের কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক হয়েছেন প্রনব চাকমা এবং তথ্য ও প্রচার সম্পাদকের পদে নির্বাচিত হয়েছেন সুধাকর ত্রিপুরা।

দলটির পূর্ণাঙ্গ কেন্দ্রীয় কমিটি পরে ঘোষণা করা হবে বলে জানানো হয়।

এর আগে শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) র‌্যালি ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও জাতীয় সম্মেলনের কার্যক্রম শুরু হয়। এতে তিন পার্বত্য জেলার জনপ্রতিনিধি ও সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

২০১০ সালে জনসংহতি সমিতির শীর্ষ নেতা ও আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা ওরফে সন্তু লারমাকে চ্যালেঞ্জ করে জনসংহতি সমিতির মানবেন্দ্র নারায়ন লারমার (এম এন লারমা) আদর্শ নিয়ে নতুন গ্রুপ গঠন করেন দলটির নেতাকর্মীদের একাংশ।

তখন গ্রুপটির জনসংহতি সমিতির বিশেষ কর্মী সম্মেলন থেকে ‘দীঘিনালা ঘোষণা-২০১০’ নামে একটি ঘোষণা দেওয়া হয়। সে ঘোষণাপত্রে রাঙ্গামাটিতে অনুষ্ঠিত ৯ম জাতীয় সম্মেলনকে প্রত্যাখ্যান করে সন্তু লারমার কার্যকলাপের শ্বেতপত্র প্রকাশ করাসহ পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন, ল্যান্ড কমিশনের আইন সংশোধন করে দ্রুত ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি এবং বাংলাদেশের আদিবাসীদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি দেওয়ার দাবি জানানো হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৬ ঘণ্টা, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
এডি/এবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa