ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ বৈশাখ ১৪৩১, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

রাজনীতি

এনডিএম দলের যুগ্ম-মহাসচিবের গাড়ী বহরে হামলা ভাঙচুর

ডিষ্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৫৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২৩
এনডিএম দলের যুগ্ম-মহাসচিবের গাড়ী বহরে হামলা ভাঙচুর

রাজবাড়ী: ভিপি নূরের রাজনৈতিক দল ‘বাংলাদেশ গণ অধিকার পরিষদ’ সন্দেহ করে ববি হাজ্জাজের রাজনৈতিক দল ‘জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন’ এনডিএম দলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মোমিনুল আমিনের উপরে হামলা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় তার ব্যবহৃত প্রাইভেটকার ও সঙ্গে থাকা একাধিক মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে হামলাকারীরা।

মোমিনুল আমিন আগাম দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজবাড়ী-২ আসন (বালিয়াকান্দি,পাংশা, কালুখালী) থেকে এনডিএম দলের সিংহ প্রতীকের মনোনীত সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী।

মঙ্গলবার (৭ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বালিয়াকান্দি উপজেলায় জনসংযোগে যাওয়ার পথে রাজবাড়ী টু বালিয়াকান্দি সড়কের কাজীবাধা এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলায় জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন এনডিএম দলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-মহাসচিব মোমিনুল আমিন, তার মা ও রাজবাড়ী জেলা এনডিএম এর প্রধান উপদেষ্টা রাফিজা আমিন, বিভাগীয় সম্পাদক শাহাদাত হোসেন, ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক মাসুদ রানা জুয়েলসহ কয়েকজন নেতা আহত হয়েছেন।

এনডিএম দলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-মহাসচিব মোমিনুল আমিন সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন এনডিএম দলের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ রাজবাড়ী-২ আসন থেকে জাতীয় সংসদ নির্বোচনে আমাকে মনোনয়ন দিয়েছেন। আমি বালিয়াকান্দি উপজেলার মানুষের সঙ্গে পরিচিত হতে সকলের দোয়া নিতে আমার মা ও অনান্য নেতাদের সঙ্গে নিয়ে রওনা হয়েছিলাম। বেলা ১১টার দিকে রাজবাড়ী মুরগী ফার্ম এলাকায় নেতারা আমাকে ফুলের শুভেচ্ছা জানায়। পরে আমি বালিয়াকান্দির উদ্দেশে রওনা হই। সঙ্গে আমার অনেক নেতাকর্মী মোটরসাইকেলে আমার সঙ্গে ছিল। পথেমধ্যে রাজবাড়ী টু বালিয়াকান্দি সড়কের কাজীবাধা এলাকায় দুর্বৃত্তরা ভিপি নুরের দল ভেবে নির্মম ভাবে আমার প্রাইভেটকার ও নেতাদের মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে। এ সময় আমি, আমার মা ও কয়েক জন নেতাকর্মী গুরত্বরভাবে আহত হয়েছি। আমাদের উপরে নির্মমভাবে হামলা করেছে তারা।  

তিনি আরও বলেন, আমাদের জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন এনডিএম দল ২০১৯ সালে নিবদ্ধিত পেয়েছি। আমারা আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনে নির্বাচন করবো বলে প্রার্থী মনোনীত করেছি। আমার গণসংযোগে যেভাবে হামলা ও ভাঙচুর চালানো হয়েছে আমি আপনাদের মিডিয়ার মাধ্যমে বলতে চাই কিভাবে সুষ্ঠ নির্বাচন হবে দেশে। একজন সংসদ সদস্য পদপ্রার্থীকে প্রচারণা চালাতে না দিলে নির্বাচনে কিভাবে অংশগ্রহণ করবো। আমাদের উপরে কেন এমন হামলা করা হলো। আমি আইনের কাছে এ ঘটনার সূষ্ঠ তদন্ত ও দোষিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই। আমি রাজবাড়ী জেলা বাসীর পাশে ছিলাম, আছি, থাকবো।

রাজবাড়ীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) মো. সালাহউদ্দিন জানান, এ ব্যাপারে খোজ খবর নেওয়া হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৯৯৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০২৩
এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।