ঢাকা, বুধবার, ৫ আষাঢ় ১৪৩১, ১৯ জুন ২০২৪, ১১ জিলহজ ১৪৪৫

রাজনীতি

গুন্ডাপান্ডা, হোন্ডা লাগবে এটাতে বিশ্বাস করি না: আলাউদ্দিন নাসিম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩৪ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২৪
গুন্ডাপান্ডা, হোন্ডা লাগবে এটাতে বিশ্বাস করি না: আলাউদ্দিন নাসিম

ফেনী: ফেনী-১ আসনের সংসদ সদস্য ও প্রধানমন্ত্রীর সাবেক প্রটোকল অফিসার আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মৃত্যুর পরে দেশে বিভীষিকাময় পরিস্থিতি হয়েছিল। তখন বঙ্গবন্ধুসহ আওয়ামী লীগের নাম নেওয়া নিষিদ্ধ হয়েছিল।

পাঠ্যপুস্তকে বাংলাদেশের ইতিহাস, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস মুছে দেওয়া হয়েছিল। এমন সময়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা দেশে ফেরার পর দলীয় ঐক্য বজায় রাখা চ্যালেঞ্জ ছিল।

‘আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৪৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে শুক্রবার (১৭ মে) সন্ধ্যায় ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। স্থানীয় পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি এম. মোস্তফা।  

তিনি বলেন, শেখ হাসিনার যুদ্ধ কাছ থেকে দেখেছি। তিনি ভোগবিলাস পায়ে ঠেলে মানুষের অধিকার আদায়ের লড়াই করেছেন। সাধারণ জীবনই উনার বড় বৈশিষ্ট্য। নেতাকর্মীরা সেখান থেকে অনেক দূরে সরে গিয়েছি। ছয় দফাসহ বঙ্গবন্ধুর সময়কালের অনেক আন্দোলন দেখেছি। এখন রাজনীতিকে কঠিন করে ফেলেছি। কলেজ শিক্ষক, উকিল, মোক্তারকে এমপি মনোনয়ন দিয়েছেন। কার টাকা-পয়সা বেশি সেটা দেখা হতো না। নেতৃত্বের গুনে সৎ হতে হবে। রাজনীতির ধরন পাল্টাতে হবে। কর্মীদের মানসিকতা পরিবর্তন করতে হবে। সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের মেধাবীরা রাজনীতি থেকে পিছিয়ে পড়ছে।

পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিনের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি খায়রুল বাশার মজুমদার তপন, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মিজানুর রহমান মজুমদার, ছাগলনাইয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গিয়াস উদ্দিন আহমেদ বুলবুল, ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান হারুন মজুমদার, অ্যাডভোকেট এএসএম শহীদ উল্যাহ, উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক জাফর উল্যাহ মজুমদার, উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এয়ার আহাম্মদ ভূঁইয়া, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক ফরিদ উদ্দিন পাটোয়ারী ও উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মুন্সি মোর্শেদ আলম।

নাসিম চৌধুরী আরও বলেন, আগামী সপ্তাহ থেকে ফুলগাজী-পরশুরামে প্রতিটা গ্রামে ঘুরবো। উঠান বৈঠক করবো। চা-বিস্কুট খাওয়াবো। গুন্ডাপান্ডা, হোন্ডা লাগবে এটাতে বিশ্বাস করি না। দরজা বন্ধ করে জনগণকে ভোট বঞ্চিত করে এমপি হবার ইচ্ছা নাই। জনগণের মন বুঝে আগামীতে নির্বাচন করবো। কারো উল্টাপাল্টা কাজের দায়িত্ব নেবো না। দুষ্ট গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ভালো।  

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের উদ্দেশে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এ সভাপতি বলেন, নিজেকে ভবিষ্যতের জন্য তৈরি করো। কারো ভবিষ্যৎ কেউ গড়ে দেবে না। মা-বাবার সেবা করো। প্রভাবশালী নেতা হওয়ার চেষ্টা করবে না। জনপ্রিয় নেতা হতে হবে। প্রভাবশালী রাজনীতিক বলতে অভিধানে কিছু নেই। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। অতীতে কী হয়েছে সেটা জানি না, সামনের দিকে চলতে চাই।

সভায় ছাগলনাইয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এনামুল হক মজুমদার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিবি জোলেখা শিল্পী, জেলা পরিষদের সদস্য কাজী ওমর ফারুক, রাধানগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মজুমদার, মহামায়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান মিনু, ঘোপাল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সেলিম, সাবেক চেয়ারম্যান এফএম আজিজুল হক মানিক, ঘোপাল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আক্তার হোসেন স্বপন, মহামায়া ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক গরীব শাহ হোসেন বাদশা চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মির্জা ইমাম হোসেন, পৌর যুবলীগের সভাপতি কাজী নুর আলম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক নুরুল করিম সবুজসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।  

শেষে দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে কেক কাটেন নাসিম চৌধুরী।  

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৪ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২৪
এসএইচডি/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।