ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৩০ মে ২০২৪, ২১ জিলকদ ১৪৪৫

রাজনীতি

টিআরপি নির্ধারণের কৌশল প্রণয়নে কমিটি আগামী সপ্তাহে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৪, ২০২০
টিআরপি নির্ধারণের কৌশল প্রণয়নে কমিটি আগামী সপ্তাহে

ঢাকা: টেলিভিশন রেটিং পয়েন্ট (টিআরপি) নির্ধারণে কৌশল প্রণয়ন করতে যাচ্ছে সরকার। এজন্য অংশীজনদের নিয়ে আগামী সপ্তাহে একটি কমিটি গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি একথা বলেন।  

তথ্যমন্ত্রী বলেন, টিআরপির ক্ষেত্রে বিরাট একটা অস্পষ্টতা আছে, কারা কখন টিআরপিতে ওপরে উঠে যায় বোঝা যায় না। অনেক সময় দেখা যায় একটা টেলিভিশন মানুষ দেখে না কিন্তু তারা টিআরপিতে অনেক উপরে, এরকম অনেক কিছু ঘটে। এজন্য টিআরপি কীভাবে নির্ধারিত হবে সেই কৌশল প্রণয়নের জন্য আগামী সপ্তাহে অংশীজনদের নিয়ে একটি কমিটি গঠন করে দেবো। সেই কমিটি নির্ধারণ করবে কীভাবে টিআরপি নির্ধারিত হবে।

তিনি বলেন, টিআরপির ক্ষেত্রে নানা ধরনের অসঙ্গতি লক্ষ্য করা যায় এবং সেখানে কীভাবে টিআরপি নির্ধারণ হয় তা নিয়েও অনেকে অনেক প্রশ্ন উত্থাপন করেন। সুতরাং, এই প্রশ্নের নিরসন হওয়া প্রয়োজন। কোনো একটি প্রাইভেট সংস্থা রাষ্ট্রীয় অনুমতি ছাড়া টিআরপি দেওয়ার কোনো এখতিয়ার রাখে না। এটি নিয়ম-নীতির মধ্যে আসা প্রয়োজন। কীভাবে টিআরপি নির্ধারিত হবে তা সরকার এবং বেসরকারি অংশীজনরা মিলে সেই কৌশল নির্ধারণ করা হবে।

বিদেশি কলাকৌশলীদের দিয়ে বিজ্ঞাপন তৈরি করে তা দেশি গণমাধ্যমে প্রচার করতে চাইলে মোটা অংকের ট্যাক্স দিতে হবে জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশে দেখা যাচ্ছে অন্য দেশের শিল্পীদের দিয়ে বিজ্ঞাপন তৈরি করে তা বাংলাদেশে প্রচার করা হয়, মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানিগুলো এগুলো করে। এতে যেটি ঘটছে তাতে আমাদের দেশে যারা বিজ্ঞাপন নির্মাণের সঙ্গে যুক্ত তারা বঞ্চিত হচ্ছেন, আমাদের দেশের ছেলে-মেয়েরা যারা বিজ্ঞাপনচিত্রে অংশ নেন তারা বঞ্চিত হচ্ছেন, দেশের শিল্প বঞ্চিত হচ্ছে, দেশ থেকে টাকা বিদেশে চলে যাচ্ছে, একইসঙ্গে গণমাধ্যমগুলো বঞ্চিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, বিদেশি কলাকৌশলী দিয়ে মুক্তবাজার অর্থনীতিতে বিজ্ঞাপন তৈরি হতেই পারে, সেক্ষেত্রে তাদের মোটা অংকের ট্যাক্স দিতে হবে। এনবিআর সেই ট্যাক্স নির্ধারণ করে দেবে। আমাদের পক্ষ থেকে খুব সহসা এনবিআরকে এ বিষয়ে চিঠি দিয়ে জানানো হবে কীভাবে এটি হতে পারে।

এছাড়া ওভার দ্যা টপ (ওটিটি) প্ল্যাটফর্মে নিয়ন্ত্রণ আরোপে ১৫ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবকে (সম্প্রচার) সভাপতি করে বিভিন্ন অংশীজনদের নিয়ে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে। ওটিটি নীতিমালা প্রণয়নে এই কমিটি কাজ করবে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৪, ২০২০
জিসিজি/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।