ঢাকা, বুধবার, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭, ০৩ মার্চ ২০২১, ১৮ রজব ১৪৪২

রাজনীতি

‘জনগণের সম্মিলিত শক্তির সামনে কোনো স্বৈরতন্ত্র টিকবে না’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৩৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২০, ২০২১
‘জনগণের সম্মিলিত শক্তির সামনে কোনো স্বৈরতন্ত্র টিকবে না’

ঢাকা: জনগণের সম্মিলিত শক্তির সামনে কোনো স্বৈরতন্ত্রই টিকবে না বলে মন্তব্য করেছেন ভাসানী অনুসারী পরিষদ, গণসংহতি আন্দোলন, ছাত্র-যুব ও শ্রমিক অধিকার পরিষদ এবং রাষ্ট্রচিন্তা নামে চার সংগঠনের নেতারা।

বুধবার (২১ জানুয়ারি) সকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সামনে শহীদ আসাদ বেদিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সমাবেশ থেকে এ কথা বলেন তারা।

বিকেলে সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের কেন্দ্রীয় মহাসচিব রফিকুল ইসলাম বাবলু। বক্তব্য রাখেন গণসংহতি আন্দোলনের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল, ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর, রাষ্ট্রচিন্তার সদস্য রাখাল রাহা, ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রাশেদ খান, যুব অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক আতাউল্লাহ। সমাবেশে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, আইয়ুব খান মৌলিক গণতন্ত্রের নামে দেশের গণতন্ত্র সম্পূর্ণ ধ্বংস করেছিলেন সামরিক শাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে। মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়ে উন্নয়নের বোলচাল দিয়ে ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তার সেই অভিলাস পূরণ হয়নি। ছাত্র-শ্রমিক-জনতার অভ্যুত্থানে উন্নয়নের দশক পালনের প্রাক্কালেই পতন ঘটে আইয়ুব শাহীর।

বক্তারা আরো বলেন, ৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানই দেশের জনগণের মধ্যে স্বাধীনতার বীজ পুঁতে দিয়েছিল। জনগণকে মুক্তির লড়াইয়ে সক্রিয় করেছিল।  গণঅভ্যুত্থান প্রমাণ করেছিল জনগণের সম্মিলিত শক্তির সামনে কোনো স্বৈরতন্ত্রই টিকে থাকতে পারে না। জনগণের সেই শক্তি গড়ে তুলে দেশে জনগণের গণতন্ত্র কায়েম করার মাধ্যমেই আসাদের স্বপ্নকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২০, ২০২১  
আরকেআর/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa