ঢাকা, সোমবার, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ৩০ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

গৌরনদীতে নির্বাচনী সহিংসতায় আরও এক বৃদ্ধের মৃত্যু

স্টাফ ক‌রেসপ‌ন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২২৪ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০২১
গৌরনদীতে নির্বাচনী সহিংসতায় আরও এক বৃদ্ধের মৃত্যু ...

ব‌রিশাল: বরিশালের গৌরনদীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় আরো একজন নিহত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। তবে পুলিশ প্রাথমিক তদন্তে বিষয়টি নিয়ে ভিন্ন তথ্য পেয়েছে।

পুলিশের পাওয়া তথ্যানুযায়ী ভ্যান ভাড়াকে কেন্দ্র করে নিহতের স্বজন ও ভ্যানচালকদের মধ্যে বিরোধ ছাড়াতে গিয়ে আহত হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় শাহ আলম খান (৬২) নামের ওই ব্যক্তির।

নিহত আলম গৌরনদীর খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা ইদ্রিস আলী খানের ছেলে ও একই ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদ্য অনুষ্ঠিত নির্বাচনের পরাজিত প্রার্থী মন্টু হাওলাদারের (ভায়রা ভাই) স্বজন।

জানা গেছে, গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের দুই সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে বোমা হামলায় বিজয়ী প্রার্থী ফিরোজ মৃধার চাচাতো ভাই মৌজে আলী মৃধা নিহতসহ ১০ জন আহত হয়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার নিহতের ছেলে মো. নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে গৌরনদী মডেল থানায় ১০১ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। বুধবার দুপুরে গৌরনদী বন্দরে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন ও হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে থানার সামনে কর্মসূচীর অয়োজন করে নিহত মৌজে আলীর ছেলে ও হত্যা মামলার বাদী নজরুল ইসলম।

নিহতের স্বজনদের দাবি, কর্মসূচী পালন করে বাড়ি ফেরার পথে বার্থী-কমলাপুর সড়কের শেষ মাথায় দক্ষিণ কমলাপুর গ্রামের বেইলি ব্রিজের সামনে পরাজিত প্রার্থী মন্টু হাওলাদারের সমর্থক শাহ আলম খানের বাড়ির সামনে পৌঁছে ফিরোজ মৃধার সমর্থকরা খুনি মন্টু হাওলাদারের ফাঁসি চাইসহ নানান উত্তেজিত স্লোগান শুরু করে। এ সময় বাড়ির দরজায় দাঁড়িয়ে পরাজিত প্রার্থী মন্টু হাওলাদারের সমর্থক শাহ আলম খানের উপর হামলা চালায় বিক্ষুব্ধরা।

তবে থানা পুলিশ বলছে, নিহতের স্বজনদের (ভাগিনা) সঙ্গে ১৫ টাকার ভাড়া নিয়ে স্থানীয় ভ্যান চালকদের কথা কাটাকাটি হয়। প্রথম দফায় ভ্যান চালক শায়েস্তা হলেও দ্বিতীয় দফায় বার্থী বেইলি ব্রিজ সংলগ্ন বাজারে বসে সেই স্বজনদের সঙ্গে বিরোধে জড়ায় ভ্যানচালক। ওইসময় ভ্যানচালক ও স্বজনদের বিরোধ মেটাতে গিয়ে ধাক্কাধাক্কিতে পরে যান শাহ আলম।

গুরুতর আহত অবস্থায় শাহ আলমকে বুধবার সন্ধ্যায় গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় রাতে তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

গৌরনদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আফজাল হোসেন জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শেবাচিম হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) সকালে নিশ্চিত করেছেন ওয়ার্ড মাস্টার আবুল কালাম।

বাংলাদেশ সময়: ১২২৪ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০২১
এমএস/কেএআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa