ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

রাজনীতি

আন্দোলন হতে হবে এক দফার: গয়েশ্বর

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১
আন্দোলন হতে হবে এক দফার: গয়েশ্বর

ঢাকা: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, সরকার হটাও আন্দোলন হতে হবে ‘এক দফার-ডু অর ডাই’। সেই আন্দোলনের সামনে আমি থাকবো।

আপনারা আমার পেছনে থাকবেন। জনগণকে মুক্ত করতে চাইলে মরণ কামড় দিতে হবে। এর মাঝে কোনো কথা নেই।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম হলে সার্বভৌমত্ব রক্ষা পরিষদের উদ্যোগে ‘সার্বভৌমত্ব ও গণতন্ত্র রক্ষা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

গয়েশ্বর চন্দ্র বলেন, আমি আগে থাকবো, আপনারা আমার পেছনে থাকবেন- সেই জায়গাটায় আসতে হবে। আমরা দীর্ঘকাল যদি ভালো থাকতে চাই, দেশের জনগণকে মুক্ত করতে চাই, স্বল্প সময়ের জন্য একটা মরণ কামড় দিতে হবে। ডু অর ডাই- এক দফা। এর মাঝখানে কোনো  কথা-বার্তার প্রয়োজন নেই। ডু অর ডাই-পরিষ্কার কথা।

দেশপ্রেম জাগ্রত করে গণআন্দোলন সৃষ্টির মাধ্যমে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে সবাইকে প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বানও জানান বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য।

তিনি বলেন, ‘হীরক রাজার দেশে- রশি ধরে মারো টান, রাজা হবে খান খান’- সেই পথেই আমাদের হাঁটতে হবে। একদফার পথেই হাঁটতে হবে, মাঝখানে অনেক কথা বলার দরকার নেই। এ পথেই গণতন্ত্রের মুক্তি, এ পথেই স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের মুক্তি, এ পথেই খালেদা জিয়ার মুক্তি, এ পথেই জনগণের মুক্তি, এ পথেই তারেক রহমানের নির্বিঘ্নে স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের যে পরিবেশ তা তৈরি হবে।

সরকারের উদ্দেশ্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, সবকিছু দিলেও ভারতকে আপনি তুষ্ট করতে পারবেন না। কারণ অদ্বীপ্ত আকাংখা কারও পক্ষে পূর্ণ করা সম্ভব হয় না। সেজন্য বলছি দেওয়া বন্ধ করেন, এখন জনগণকে দেন। কী দেবেন? এই যে ১২ বছর যাবত গণতন্ত্র ভ্যানেটি বেগে রাখছেন-  এটা খুলে দেন।

সংগঠনের সভাপতি ওসমান গণির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শরীফ হোসেনের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১
এমএইচ/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa