ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

এভিয়াট্যুর

ঢাকা-কায়রো রুটে সপ্তাহে ইজিপ্টএয়ারের দুই ফ্লাইট

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১১, ২০২৩
ঢাকা-কায়রো রুটে সপ্তাহে ইজিপ্টএয়ারের দুই ফ্লাইট

ঢাকা: মিশরের রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী এয়ারলাইন্স ইজিপ্টএয়ার আগামী ১৪ মে থেকে ঢাকা থেকে নিয়মিত ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করবে। সংস্থাটি প্রাথমিকভাবে ঢাকা ও কায়রোর মধ্যে সাপ্তাহিক দুটি ফ্লাইট পরিচালনার পরিকল্পনা করেছে।

এ উপলক্ষে ইজিপ্টএয়ারের ডিস্ট্রিক্ট ম্যানেজার মোস্তফা মাগদি হোসেন এলকাদি এবং ইজিপ্টএয়ার বাংলাদেশ কার্যালয়ের নির্বাহী পরিচালক ও প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা (সিওও) ফরহাদ হোসেন মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল) বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী মাহবুব আলীর সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন। তারা মিশর ও বাংলাদেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বিমান যোগাযোগ চালুর উদযাপন নিয়ে আলোচনা করেন।

বৈঠকে মাহবুব আলী বলেন, বাংলাদেশে ইজিপ্টএয়ারের উদ্বোধন আমাদের দুই ভ্রাতৃপ্রতিম দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে একটি মাইলফলক।

তিনি বলেন, ইজিপ্টএয়ারের ফ্লাইট শুরু হওয়ার সাথে সাথে ঢাকা এবং কায়রোর মধ্যে এর সরাসরি ফ্লাইটগুলি কায়রো হয়ে মিশর, ইউরোপ এবং উত্তর আমেরিকা ভ্রমণ করতে ইচ্ছুক বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের জন্যও একটি দুর্দান্ত সুযোগ দেবে। ব্যবসা, কার্গো বিনিময় ও মিশরীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সুবিধার প্রতিফলন ঘটাবে। এটি পর্যটকদের সাহায্য করবে যারা বহুমুখী মিশরীয় পর্যটন অন্বেষণ করতে আসবে।

মোস্তফা মাগদি তার দেশকে আধুনিক সভ্যতার দোলনা হিসেবে তুলে করে বলেন, মিশরীয় আতিথেয়তা এবং বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য উপভোগ করতে মিশর ও ইজিপ্টএয়ার বাংলাদেশ থেকে আসা পর্যটক ও যাত্রীদের স্বাগত জানায়।

তিনি বাণিজ্য, পর্যটন ও বিনিয়োগের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও মিশরের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা বাড়ানোর বিষয়েও আলোচনা করেন।

ইজিপ্টএয়ার বাংলাদেশ কার্যালয়ের নির্বাহী পরিচালক ফরহাদ হোসেন বলেন, এই রুটে ফ্লাইট চালু হলে দুই দেশের পর্যটন, ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়বে।

এয়ারলাইন্সটি নতুন বোয়িং ৭৮৭-৯ এয়ারক্রাফট দিয়ে সপ্তাহে রবিবার ও বুধবার ঢাকা থেকে ফ্লাইট পরিচালনা করবে। বাংলাদেশের বিমান চলাচলের ইতিহাসে এখন ইজিপ্টএয়ারই হয়ে উঠবে মিশর ও বাংলাদেশের মধ্যে ননস্টপ ফ্লাইট পরিচালনার একমাত্র অপারেটর, যোগ করেন তিনি।

ইজিপ্টএয়ার আশা করে যে ননস্টপ পরিষেবাটি দুই দেশের মধ্যে অবসর ভ্রমণকে আরও বাড়িয়ে তুলবে এবং কায়রোর মধ্য দিয়ে ট্রাফিককে এয়ারলাইন্সের পরবর্তী গন্তব্যে, যেমন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, মধ্যপ্রাচ্য এবং আফ্রিকার সাথে সংযুক্ত করবে।

ইজিপ্টএয়ার মধ্যপ্রাচ্য, ইউরোপ, আফ্রিকা, এশিয়া এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ ৮০টিরও বেশি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করে। ইজিপ্টএয়ারের বহরে ৬৯টি অত্যাধুনিক উড়োজাহাজ রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ১১, ২০২৩
এমকে/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।