ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৮ মে ২০২৪, ১৯ জিলকদ ১৪৪৫

এভিয়াট্যুর

বিমানের চেয়ারম্যান ও সিইও-এর সঙ্গে কানাডিয়ান হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২১০ ঘণ্টা, আগস্ট ২৯, ২০২৩
বিমানের চেয়ারম্যান ও সিইও-এর সঙ্গে কানাডিয়ান হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ

ঢাকা: বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও শফিউল আজিমের সঙ্গে বাংলাদেশে নিযুক্ত কানাডার রাষ্ট্রদূত লিলি নিকোলস সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।  

মঙ্গলবার (২৯ আগস্ট) বিমানের সদর দফতর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় সোমবার ২৮ বিমানের প্রধান কার্যালয় বলাকায় এই বৈঠক অনুষ্টিত হয়।

 

সাক্ষাৎকালে বিমানের চেয়ারম্যান এবং এমডি ও সিইও বলাকায় রাষ্ট্রদূতকে স্বাগত জানান। আনুষ্ঠানিক বৈঠকে কানাডা ও বাংলাদেশের মধ্যে বিমান চলাচল ও এয়ার কানাডার সঙ্গে কোড শেয়ার চুক্তির সম্ভাব্য দিক নিয়ে আলোচনা হয়।

রাষ্ট্রদূত বলেন, বিমানের ঢাকা-টরন্টো ফ্লাইট দুই দেশের মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থাকে সহজ করেছে। এই রুটে যাত্রী সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায়, ঢাকা-টরন্টো ফ্লাইটের সফলতার ব্যাপারে সন্দেহ দূর হয়েছে।

বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মোস্তাফা কামাল উদ্দীন বলেন, ঢাকা-টরন্টো রুটটি বর্তমানে বিমানের অন্যতম লাভজনক রুটে পরিণত হয়েছে। এই রুটে ফ্লাইট ফ্রিকোয়েন্সি বাড়ানোরও প্রস্তাব আসছে।  

তিনি আরও বলেন, রুটটি চালু হওয়ার ফলে ট্রানজিট জটিলতা নিরসন হয়েছে। বন্ধুপ্রতীম দুই দেশের মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হওয়ায় শিক্ষা ও ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ঘটছে। বাংলাদেশের পাশাপাশি পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর যাত্রীরাও উপকৃত হচ্ছেন।

বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও শফিউল আজিম বলেন, ১৯৯৯ সাল থেকে কানাডার সঙ্গে বিমানের ইন্টার-লাইন যোগাযোগ আছে। আমরা সেটি আরও বিস্তৃত করতে চাই।  

বাংলাদেশ সময়: ১২০৫ ঘণ্টা, আগস্ট ২৯, ২০২৩
এমকে/এসআইএস 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।