ঢাকা, সোমবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৭ মে ২০২৪, ১৮ জিলকদ ১৪৪৫

এভিয়াট্যুর

জাতীয় নির্বাচন কেন্দ্র করে ৩ বিমানবন্দরে নিরাপত্তা জোরদার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১১, ২০২৩
জাতীয় নির্বাচন কেন্দ্র করে ৩ বিমানবন্দরে নিরাপত্তা জোরদার

ঢাকা: আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশের বিমানবন্দরগুলোয় বাড়তি নিরাপত্তা জোরদারের উদ্যোগ নিয়েছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। এ লক্ষ্যে শাহজালালসহ আন্তর্জাতিক তিন বিমানবন্দরে অতিরিক্ত আর্মড পুলিশ মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) একটি সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

সূত্রমতে, বর্তমান জনবলের পাশাপাশি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) অতিরিক্ত ১০০ সদস্য নিয়োগের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়া, সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নিয়োগ দেওয়া হবে এপিবিএনের অতিরিক্ত ৬০ সদস্য। পাশাপাশি, চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অতিরিক্ত ৫৪ আনসার সদস্য নিয়োগ দেওয়া হবে।

সূত্র আরও জানিয়েছে, জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে সম্প্রতি বৈঠক করেছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়। ওই বৈঠকে বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বাড়ানোর বিষয়টি উঠে আসে। গত ৫ ডিসেম্বর মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব আহম্মেদ জামিলের সই করা এক চিঠিতে বেবিচক চেয়ারম্যানকে নিরাপত্তা জোরদারে বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়। চিঠিতে সিকিউরিটি পাসের অপব্যবহার রোধ, সিসিটিভি ক্যামেরা সচল রেখে ফুটেজ যথাযথভাবে রেকর্ড করাসহ মোট ১২টি নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন কামরুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, আমরা আগে থেকেই যাত্রীদের নির্বিঘ্নে যাতায়াতের জন্য সব সময় সচেষ্ট আছি। এ বিষয়ে আইকাওয়ের নির্দেশনা মোতাবেক আমরা কাজ করছি। যাত্রীদের রাস্তাঘাটে যাতে কোনো সমস্যা না হয়, সেজন্য বেবিচকের নির্দেশনা মোতাবেক বর্তমানে লোকবলের পাশাপাশি আমাদের লোকবল বাড়ানো হয়েছে। যাতে যাত্রীরা আরও ভালো সেবা পান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিমানবন্দর আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জিয়াউল হক বাংলানিউজকে বলেন, হরতাল-অবরোধ শুরুর পর থেকেই বিমানবন্দরের এন্ট্রি গেইট, টার্মিনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ এরিয়াগুলোয় আমরা আরও কিছু লোক বাড়িয়েছি। যেন বিমানবন্দর এলাকায় কোনো নাশকতা না হয়, বা জনসমাগম ও বিশৃঙ্খলা তৈরি না হয়। এ বিষয়ে এপিবিএন সর্বোচ্চ সতর্ক থেকে কাজ করছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১১, ২০২৩
এমকে/এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।