ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৮ মে ২০২৪, ১৯ জিলকদ ১৪৪৫

কর্পোরেট কর্নার

আইইউবিতে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের বিশেষ অনুষ্ঠান

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৫১ ঘণ্টা, মার্চ ১১, ২০২৪
আইইউবিতে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের বিশেষ অনুষ্ঠান

ঢাকা: আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে ‌‘ইনক্লুশন ফর ন্যাশনাল গোলস: লেডিস ইন লিডারশীপ’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (আইইউবি)।  রোববার (১০ মার্চ) আইইউবি মিলনায়তনে অনুষ্ঠানটি আয়োজিত হয়।

 

আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন এসিআই ফরমুলেশনস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুস্মিতা আনিস, এফসিবি বিটপির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সারাহ আলী, ওরাকল বাংলাদেশ, নেপাল ও ভুটানের কান্ট্রি ম্যানেজিং ডিরেক্টর রুবাবা দৌলা এবং বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রূপালী চৌধুরী।

সুস্মিতা আনিস বলেন, যে পরিবেশে সহকর্মীদের বেশিরভাগই পুরুষ, বয়সে বড় এবং পিএইচডি ডিগ্রিধারী, সেখানে নারীদের আত্মবিশ্বাস চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে পারে। এ অবস্থায় সামনে এগিয়ে যেতে হলে ক্রমাগত শেখা, বোঝা এবং মানিয়ে নেওয়ার কোনো বিকল্প নেই।

সারাহ আলী বলেন, নারীদের উচিত বড় ক্যারিয়ার গড়ার দিকে মনোযোগ দেওয়া। জীবনে বড় কিছু করার উচ্চাকাঙ্ক্ষা থাকা জরুরি। ক্যারিয়ারের বা পরিবার – একটির জন্য আরেকটির সাথে আপস না করেই এটা করা সম্ভব, যদি সংকল্প দৃঢ় হয়।

আইইউবির নারী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে রুবাবা দৌলা বলেন, সামনে যত বাধা-বিপত্তিই আসুক, কোনোভাবেই থেমে গেলে চলবে না। একজন নারী হয়ে অন্য একজন নারীকে সব সময় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। আপনাদের সবার জন্য আমার শুভ কামনা রইলো যাতে আপনারা আপনাদের স্বপ্নকে ছুঁতে পারেন, লক্ষ্যগুলো অর্জন করতে পারেন, এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যেটা, নিজের ওপর সবসময় বিশ্বাস রাখতে পারেন।

রূপালী চৌধুরী বলেন, আজকের যুগে ব্যক্তিগত জায়গা থেকে প্রাসঙ্গিক থাকতে হলে প্রযুক্তিগত দক্ষতা থাকতেই হবে। নারীদের জন্য এটা আরও বেশি প্রয়োজন। সুতরাং আমাদের প্রতিনিয়ত শিখতে হবে এবং প্রশ্ন করতে হবে। যে প্রশ্ন করে, সে কখনো হাল ছাড়ে না।

আইইউবির ট্রাস্টি ড. হোসনে আরা আলী বলেন, একজন মা, একজন স্ত্রী, একজন অ্যামেচার চিত্রশিল্পী এবং লেখক হওয়া সত্ত্বেও তিনি সবসময় আইইউবির উন্নয়নকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন। তবে তার মানে এই নয় যে তিনি অন্য দায়িত্বগুলোকে অবহেলা করেছেন। জীবন থেকে তিনি শিখেছেন যে সংকল্প দৃঢ় হলে এবং সময় ব্যবস্থাপনায় কুশলী হলে সব দায়িত্ব পালন করা সম্ভব।  

স্বাগত বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক তানভীর হাসান বলেন, আইইউবিতে ভর্তি হওয়ার জন্য নারী শিক্ষার্থীদের আকৃষ্ট করতে আমরা বেশ কিছু অ্যাকাডেমিক প্রোগ্রাম এবং অবকাঠামোগত সুযোগ-সুবিধা তৈরি করেছি। দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় যদি শিক্ষার্থী ভর্তি, শিক্ষক নিয়োগ এবং নেতৃত্ব নির্বাচনে নারীদের অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিত করতে পারে, তাহলে জাতীয় লক্ষ্যগুলো অর্জন কেউ ঠেকিয়ে রাখতে পারবে না।

আইইউবি ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান দিদার এ হোসেইন, ট্রাস্টি মিসেস সালমা করিম এবং উপ-উপাচার্য অধ্যাপক নিয়াজ আহমদ খান অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।  

সঞ্চালনায় ছিলেন ডিপার্টমেন্ট অব ইংলিশ অ্যান্ড মডার্ন ল্যাঙ্গুয়েজেসের বিভাগীয় প্রধান এবং সহকারী অধ্যাপক নওরীন রাহনুমা।

বাংলাদেশ সময়: ১১৫১ ঘণ্টা, মার্চ ১১, ২০২৪
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।