ঢাকা, রবিবার, ২ আষাঢ় ১৪৩১, ১৬ জুন ২০২৪, ০৮ জিলহজ ১৪৪৫

কর্পোরেট কর্নার

আরও মানুষকে ডিজিটাল সংযোগের আওতায় আনতে চায় গ্রামীণফোন

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৫৫ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২৪
আরও মানুষকে ডিজিটাল সংযোগের আওতায় আনতে চায় গ্রামীণফোন

ঢাকা: বিশ্ব টেলিযোগাযোগ ও তথ্য সংঘ দিবস উপলক্ষে ডিজিটাল সংযোগ আরও সম্প্রসারণের সংকল্প ব্যক্ত করেছে শীর্ষ টেলিযোগাযোগ সেবা দানকারী এবং আট কোটি ৩০ লাখ মানুষের আস্থার কোম্পানি গ্রামীণফোন।

ডিজিটাল বৈষম্য দূর করা এবং দেশজুড়ে সবাইকে টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তির আওতায় আনতে সংকল্পবদ্ধ অপারেটরটি।

‘টেকসই উন্নয়নের জন্য ডিজিটাল উদ্ভাবন’ প্রতিপাদ্য নিয়ে দিবসটি পালন করে সেই সংকল্পকে আরও দৃঢ় করেছে কোম্পানিটি।

অন্তর্ভুক্তিমূলক ডিজিটাল সমাজ গড়ার লক্ষ্যে সংযোগের মাধ্যমে সমাজের মানুষের ক্ষমতায়ন এবং ভৌগলিক ও সামাজিক বৈষম্য কমিয়ে আনার ক্ষেত্রে নিজেদের নিরন্তর প্রচেষ্টার বিষয়টি তাৎপর্যপূর্ণ এই দিবসে তুলে ধরেছে গ্রামীণফোন। গ্রাহকদের প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল চাহিদা মেটাতে উদ্ভাবনী পদক্ষেপ এবং কৌশলগত অংশীদারত্বের মাধ্যমে নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ, সেবার মান বাড়ানো এবং সাশ্রয়ী মূল্যের সেবা অব্যাহত রেখেছে গ্রামীণফোন।

গ্রামীণফোনের সিইও ইয়াসির আজমান এক বিবৃতিতে বলেন, ইতিবাচক পরিবর্তন এবং সমন্বিত অগ্রগতির জন্য সংযোগের রূপান্তরকারী শক্তিতে বিশ্বাসী গ্রামীণফোন। বিশ্ব টেলিযোগাযোগ ও তথ্য সংঘ দিবসে আমরা আবারও বলছি যে, ডিজিটাল প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশের আরও মানুষকে সংযোগের আওতায় আনতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ গ্রামীণফোন। আমরা যা কিছু করি, তার কেন্দ্রে থাকেন গ্রাহক। তাই তাদের জন্য অংশীজনদের সঙ্গে নিয়ে উদ্ভাবন এবং স্মার্ট বাংলাদেশ ও আরও অন্তর্ভুক্তিমূলক ডিজিটাল সমাজ গড়ে তুলতে আমরা আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখব।

দেশের সবচেয়ে প্রিয় ও আস্থাশীল টেলিযোগাযোগ ব্র্যান্ড হিসেবে সমাজের অগ্রগতির জন্য নতুন নতুন প্রযুক্তি নিয়ে আসা, ডিজিটাল অন্তর্ভুক্তি বাড়ানো এবং লাখ লাখ মানুষের জীবনে অর্থবহ পরিবর্তন আনতে দৃঢ় প্রত্যয়ী গ্রামীণফোন।

বাংলাদেশ সময়: ০৭৫৫ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২৪
এমআইএইচ/এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।