ঢাকা, শনিবার, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ শাবান ১৪৪৫

ক্রিকেট

বিশ্বকাপ থেকে ‘কিছুই বদলায়নি’ বলছেন শান্ত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস, সিলেট থেকে | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২, ২০২৩
বিশ্বকাপ থেকে ‘কিছুই বদলায়নি’ বলছেন শান্ত

অথচ ক’দিন আগেও সবকিছু মনে হচ্ছিল এলোমেলো। সিলেটে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড টেস্টের আগেও এ নিয়ে কথা হয়েছে অনেক।

মাঝখানে আলোচনা-সমালোচনাও কম হয়নি। কিন্তু এর মধ্যে এখন প্রেক্ষাপট বদলে গেছে অনেকটাই।  

সিলেটে নিউজিল্যান্ডকে টেস্টে হারিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। প্রায় প্রতিটি ঘণ্টাই লড়াই করেছে তারা। দলকে দেখেও মনে হয়েছে বেশ উদ্বুদ্ধ, সবাই ম্যাচের সঙ্গে জড়িয়ে ছিলেন বেশ ভালোভাবে। অথচ মাসখানেক আগের বিশ্বকাপেও দেখা গেছে একেবারেই উল্টো চিত্র। এর মধ্যে কী বদলে গেলো?

টেস্ট অধিনায়কত্বের অভিষেকে সেঞ্চুরি করা ও জয় পাওয়া নাজমুল হোসেন শান্ত উত্তরে বলেন, ‘কিছুই বদলায়নি। বাইরে কথা হতেই থাকবে। এখন অনেক ভালো কথা হবে। আবার একটা ম্যাচ খারাপ করলে অনেক সমালোচনা হবে। এটা আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। ওটা নিয়ে আমরা চিন্তাও করি না। ’

‘আমরা প্রতি ম্যাচে কীভাবে পরিকল্পনা করে আসতে পারি, আমাদের পরিকল্পনাটা কী, আমাদের প্রসেসটা কী। যেটা আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে, সেটা নিয়মিত করার চেষ্টা করি। আজকের ম্যাচটা জিততে পেরেছি, আজকের ম্যাচে এমন না যে সবকিছু ঠিক ছিল। এ ম্যাচে কী ভুল ছিল এগুলো নিয়ে কীভাবে পরের ম্যাচে পরিকল্পনা করে এগোতে পারি সেটাই আমাদের পরিকল্পনা থাকে। ’ 

তিন ফরম্যাটেই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে নেতৃত্ব দিচ্ছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। কিন্তু কোনোটিতেই তিনি স্থায়ী নন। সাকিব আল হাসানের ভবিষ্যতে কয়েকটি ফরম্যাটে অধিনায়কত্ব করার সম্ভাবনা কম। শান্ত কী এখন মনে করেন, বাকিদের চেয়ে এগিয়ে আছেন তিনি?

এমন প্রশ্নের জবাবে শান্ত বলেন, ‘জানি না আমি। এটা আমি এগিয়ে থাকবো কি না আসলেই জানি না। হয়তো যারা বাইরে থেকে দেখেছেন, তারা আরও ভালো বলতে পারবেন। আমার কাজ হলো আমি যতটুকু জানি,ওই অনুযায়ী কীভাবে দলের সাহায্য করতে পারি। এটাই আমি করার চেষ্টা করেছি। এর বাইরে আমি আসলে এ বিষয়ে কিছু বলতে পারবো না। ’

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেই টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে পথচলা শুরু হয়েছে শান্তর। এমন ম্যাচে প্রথম বাংলাদেশি অধিনায়ক হিসেবে অভিষেকেই সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন তিনি। পরে তিনি পেয়েছেন দুর্দান্ত এক জয়ও। এটি কি শান্তকে অধিনায়কত্বের লম্বা পথচলায়ও অনুপ্রাণিত করবে?

তিনি বলেন, ‘প্রথম আমি অধিনায়ক হিসেবে হারা-জেতা নিয়ে খুব বেশি চিন্তিত না। সত্যি বলছি যে জিনিসটা আমি নিজে করার চেষ্টা করি এবং দলের খেলোয়াড়দের কাছ থেকে চাই প্রসেসটা মেইনটেইন করছে কি না। খেলোয়াড়দের মধ্যে ওই কমিটমেন্টটা আছে কি না। তারা শতভাগ দিচ্ছে কি না। ’ 

‘এ জিনিসটা আমি খেলোয়াড়দের কাছ থেকে চাই এবং আমি নিজেও চেষ্টা করি। যখন আমি দেখি এই জিনিসগুলো সবগুলো হচ্ছে। ফল অটোমেটিক আসবে। কোনোদিন আমরা জিতবো, কোনোদিন হয়তো জিতবো না। কিন্তু আগেই যদি ফল নিয়ে চিন্তা করি তাহলে কঠিন। এটা আমার ব্যক্তিগত পরিকল্পনা থাকে। আর আরেকটা জিনিস এই ধরনের জয় তো অনুপ্রাণিত করবেই যদি সামনে সুযোগ আসে। ’

বাংলাদেশ সময় : ১৫০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০২, ২০২৩
এমএইচবি/এএইচএস
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।