ঢাকা, সোমবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ জুন ২০২২, ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

ক্রিকেট

ভাল খেলার জন্যে মুখিয়ে আছি: মুশফিক

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৪৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০১৪
ভাল খেলার জন্যে মুখিয়ে আছি: মুশফিক মুশফিকুর রহিম

ঢাকা: ওয়ানডে বিশ্বকাপ দরজায় কড়া নাড়ছে। ক্রিকেটারদেরও প্রস্তুতি চলছে দ্রুতই।

বিশ্বকাপের বাইরেও সাকিব, মুশফিকরা এখন ব্যস্ত প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে।

কিন্তু থেমে নেই বিশ্বকাপ নিয়ে ভাবনা। প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের শিরোপা লড়াইয়ের উত্তেজনার মধ্যে ক্রিকেটারদের ভাবনায় বিশ্বকাপ। বাংলাদেশের টেস্ট দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের ভাবনা জুড়ে এখন বিশ্বকাপ।

সকালে অনুশীলন শেষে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে বিশ্বকাপ ভাবনা নিয়ে কথাও বললেন বাংলাদেশ দলের টেস্ট অধিনায়ক।  

প্রশ্ন :  বিশ্বকাপ নিয়ে আপনার ব্যক্তিগত প্রস্তুতিটা কি?

মুশফিকুর রহিম : ব্যক্তিগত প্রস্তুতিতো অবশ্যই আছে। খেলাগুলো এখন প্রতিনিয়তই টিভিতে দেখা হচ্ছে। কেমন হতে পারে উইকেট সেই সম্পর্কেও ধারণা আছে। যদিও ওখানে অনেকদিন ধরে খেলা হয়নি। সর্বশেষ অনুর্ধ্ব-১৯ এর হয়ে ২০০৬ সালে ওখানে খেলেছিলাম। অনেকেই বলছে পেস বোলিংয়ের জন্য অনেক হেল্প হবে। কিন্তু আমি ব্যক্তিগত ভাবে ফিল করি এমন বড় একটা ইভেন্টে বেশি সুইং বা সিমিং এমন হবে না; হয়তোবা বাউন্সি হবে সেটা নরম্যাল। ব্যাটসম্যানদের জন্য রান করা খুব যে কঠিন হবে তাও না। সাইড শটগুলো আমরা যদি রপ্ত করতে পারি তবে আমার মনে হয় রান করাটা অনেক সহজই হবে। বেশিরভাগ কাজগুলো ব্যাটসম্যানদেরই করতে হবে। সেদিক থেকে আমরা অনুশীলন করছি নেটে, মেশিনে। এটা হয়তো উইকেটের ক্ষেত্রে তেমন হেল্প করবে না। তারপরও আমাদের কাছে যতটুকু রিসোর্স এগুলো নিয়ে আমরা চেষ্টা করছি।

প্রশ্ন :  গত বিশ্বকাপে আপনার ভাল যায়নি। কিন্তু এর পর টানা ৩ বছর ভাল ক্রিকেট খেলেছেন; এই বছরে সবচেয়ে বেশি রান করেছেন। আসন্ন বিশ্বকাপে এটাকে  সুযোগ হিসেবে দেখছেন কিনা?

প্রশ্ন : তাতো অবশ্যই। প্রত্যেকটা মানুষই চায় এতোবড় ইভেন্টে ভাল করতে।   একটা দলে ভাল খেললে, সেই সঙ্গে আরও ২-৩ জন যদি ভাল খেলে তাহলে দলটিরও ভাল খেলার সুযোগ বেশি থাকে। শেষ ৩টা বছর ভাল গেছে, কিন্তু এটা এখন অতীত। নতুন বছরটা বিশ্বকাপ দিয়ে শুরু হবে। আমারও চেষ্টা থাকবে। বিশ্বকাপে এমন কন্ডিশনে যদি আমরা ভাল খেলতে পারি তবে টিম হিসেবে অনেকের কাছেই একটা মেসেজ দেওয়া হবে। এমন কন্ডিশনে বাংলাদেশ দল ভাল খেলতে পারে। শুধু ব্যক্তিগত ভাবে নয়, দল হিসেবে আমরা সবাই মুখিয়ে আছি। ভাল খেলার জন্য আমরা সবাই মুখিয়ে আছি।

প্রশ্ন : আপনার প্রতি সবার একটা প্রত্যাশা থাকে। আপনি নামলেই রান করবেন; এটা কোন চাপ সৃষ্টি করছে কিনা?

মুশফিক : এভাবে আসলে কোন চাপ সৃষ্টি করে না। অনেক সময় আমার নিজেরই মনে হয় আমি রান করতে পারব না। অতিরিক্ত একটা চাপ থাকলে সেখানে অবদান রাখতে অবশ্যই ভাল লাগে। আশা করব এটা যেন কন্টিনিউ হয়। দল হিসেবে যেন আমরা কাজগুলো ওভারকাম করতে পারি।

প্রশ্ন: বিশ্বকাপে আপনার লক্ষ্যটা কি থাকবে?

মুশফিকুর রহিম :  এই বছরটা ভাল গেছে আশা করব সামনের বছরটা বিশ্বকাপ দিয়ে শুরু হচ্ছে, সেটা যেন ভাল ভাবে শুরু করতে পারি।   শুধু আমি না; আমরা পুরো দল যদি ভাল খেলি তবে দলে একটা ইতিবাচক রেজাল্ট আসবে। চেষ্টা করব আমি যেন ভাল খেলি এবং আমার আশে পাশে যারা থাকবে তাদের নিয়ে যেন দল হিসেবে ভাল খেলতে পারি।

প্রশ্ন : এই বছরের সবচেয়ে ভালো স্মৃতি?

মুশফিকুর রহিম: বলাটা কঠিন। কেননা খুব বেশি এমন হয়নি আমি ভাল খেলেছি, দল জিতেছে। এই বছরটা ব্যক্তিগত ভাবে ভাল গেছে। যদি দল হিসেবে বলেন তবে বলব জিম্বাবুয়ে সিরিজটা ভাল কেটেছে।   আমরা বাজে জায়গা থেকে কামব্যাক করেছি। যে জায়গা থেকে আমাদের উচিত ছিল কামব্যাক করা, সেই জায়গা থেকে কামব্যাক করতে পেরেছি। ৮-০ এটা সহজ সমীকরণ নয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa