ঢাকা, বুধবার, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

আদালতেই হবে বিয়ে, মিলবে স্বীকৃতি

মিনহাজুল ইসলাম, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৪০ ঘণ্টা, আগস্ট ৮, ২০২২
আদালতেই হবে বিয়ে, মিলবে স্বীকৃতি ...

চট্টগ্রাম: সানাই বাজবে না। রঙিন বাতির ঝলকানিও থাকবে না।

বরযাত্রীর মিছিলে আনন্দ আয়োজনও নয়। কেননা আয়োজনটা হচ্ছে আদালতেই। এমন বিয়েতে আনন্দের চেয়ে তৃপ্তির আয়োজনের পরশ থাকে আদালত প্রাঙ্গণের ধূসর দেয়ালগুলোতে।  

সোমবার (৮ আগস্ট) দুপুরে চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আজিজ আহমেদ ভূঞার আদালতে এই বিয়ে আয়োজনের কথা রয়েছে। এর আগে হুজুর ডেকে বিয়ে হয়েছিলো ফারহানা ইসলাম শারমিন ও সাগরের। কিন্তু কোনও রেজিষ্ট্রেশন করা হয়নি। এরপর গর্ভে আসে সন্তানও। শারমিনের বাড়ি থেকে নেওয়া হয়েছে যৌতুকও। কিন্তু হঠাৎ করে বিয়ের কথা অস্বীকার করেন সাগর। এরপর আদালতে মামলার আবেদন করলে হাটহাজারী থানায় এজাহার নেওয়া নির্দেশ দেন আদালত। সেই মামলায় গত ২০ জুলাই থেকে কারাগারে আছেন সাগর। বর মো.সাগর নগরের বায়েজিদ বোস্তামী থানার কৃষ্ণছায়া আবাসিক এলাকার ইদ্রিস হাওলাদারের ছেলে।  

আদালত সূত্রে জানা যায়, চাকরি সূত্রে পরিচয় হয়ে দুইজনের মধ্যে সুসম্পর্ক গড়ে উঠে। সেই সম্পর্কের সূত্র ধরে শারমিন সাগরের সম্পর্ক প্রেমে গড়ায়।  

সাগর শারমিনকে কথিত বিয়ে করার পর তার সঙ্গে ঢাকা, বরিশাল ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন ভাড়া বাসায় স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বসবাস করে। ইতিমধ্যে সাগরের ঔরসে শারমিনের গর্ভে এক কন্যা সন্তান জন্মগ্রহণ করে। তার বয়স এখন ১ বছর ৪ মাস।  

দীর্ঘদিন ধরে কাবিননামা রেজিস্ট্রি না করায় জোর করলেও সাগর তার পিতা ও ভাইয়ের সহযোগিতায় সব বিষয় সম্প্রতি অস্বীকার করে। চট্টগ্রাম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এ মামলার আবেদন করলে আদালত হাটহাজারী থানায় মামলার নেওয়ার নির্দেশ দেন । এই মামলায় আসামি করা হয় মো.সাগর, সাগরের ভাই রেজাউল করিম শাকিল ও পিতা মোহাম্মদ ইদ্রিস হাওলাদারকে।  

চট্টগ্রাম জেলা পিপি শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, একসঙ্গে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে বসবাস করেছে তারা। কিন্তু বিবাহ রেজিস্ট্রি করেনি।  সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে। সেখানে বিবাহ রেজিস্ট্রি করা হবে। বিবাহের পর আদালতে জামিন শুনানি হবে।

মামলার বাদীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট আনোয়ার শাহাদাত চৌধুরী নয়ন বাংলানিউজকে বলেন, দীর্ঘদিন একসঙ্গে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস করলেও বিবাহ রেজিস্ট্রি করেনি। তাদের ১৬ মাসের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। রোববার চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আদালতের জামিন শুনানি হয়েছিল।  সোমবার বিবাহ রেজিস্ট্রি করার পর আবার জামিন শুনানি হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০০৩৯ ঘণ্টা, আগস্ট ০৮, ২০২২
এমআই/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa