ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ চৈত্র ১৪২৯, ৩১ মার্চ ২০২৩, ০৮ রমজান ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

কলকাতা বইমেলা শুরু হতে বাকি মাত্র ন’দিন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২০, ২০২৩
কলকাতা বইমেলা শুরু হতে বাকি মাত্র ন’দিন

কলকাতা: ভারতের সবচেয়ে বড় বই উৎসব 'আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলা' ৯ দিন পর শুরু হবে। ৪৬তম কলকাতা বইমেলার উদ্বোধন হবে ৩০ জানুয়ারি।

এবারের বইমেলার থিমকান্ট্রি স্পেন। মেলা চলবে ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলার উদ্বোধন করবেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সঙ্গে সম্মানীয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্পেনের মন্ত্রী মারিয়া খোসে গালবেজ সালভাদর, বিশিষ্ট সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়। এছাড়া উপস্থিত থাকবেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের বিভিন্ন দফতরের মন্ত্রীরা এবং স্পেন ও বাংলার কবি সাহিত্যিক গুনীজন।

শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) আসন্ন বই মেলা নিয়ে একটি পাঁচ তারা হোটেলে সাংবাদিক সম্মেলন করেন বুকসেলার্স অ্যান্ড গিল্ডের কর্তৃপক্ষ। এতে সাধারণ সম্পাদক ত্রিদিবকুমার চট্টোপাধ্যায় বলেন, স্পেন এই নিয়ে দ্বিতীয়বার থিমকান্ট্রির মর্যাদা পেলো। এর আগে ২০০৬ সালে বইমেলার থিমকান্ট্রি হিসেবে স্পেন অংশগ্রহণ করেছিল।

তিনি আরও বলেন, ৭০০ ছোটবড় প্রকশানা স্টল এবং ২০০ লিটল ম্যাগাজিন স্টল মিলিয়ে ৯০০টি প্রকশনা অংশ নিচ্ছে। থাকছে নটি প্রবেশ দ্বার। তারমধ্যে একটি স্পেনের তোলেদো গেটের আদল। এছাড়া দ্বিশত জন্মবর্ষ উদযাপনে বইমেলার দুটি হল হচ্ছে মাইকেল মধুসূদন দত্ত এবং প্যারীচরণ সরকারের নামে।

এবারে আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলায় সরাসরি ও যৌথভাবে অংশ নিচ্ছে ২০টি দেশ নিচ্ছে। এবারই প্রথম অংশ নিচ্ছে থাইল্যান্ড। অংশ নিচ্ছে ভারতের অন্যান্য রাজ্যের প্রকাশনা সংস্থা। থাকবে লিটল ম্যাগাজিনের স্টল। বইমেলার আরেকটি বিশেষ আকর্ষণ, ৯ম কলকাতা লিটারেচার ফেস্টিভ্যাল, যা অনুষ্ঠিত হবে ৯ থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি।

এবারের ৪৬তম বইমেলায় তিনটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো, সবচেয়ে বেশি প্রকাশক অংশ নিচ্ছে; সবমিলিয়ে ৯০০টি প্রকাশনা সংস্থা। দ্বিতীয়, বইমেলা প্রাঙ্গণের সামনেই তৈরি হয়েছে মেট্রোরেল। ফলে বইমেলা যাওয়ার জন্য পাঠকরা মেট্রোরেল ব্যবহার করতে পারবেন। বইমেলা উপলক্ষে বাড়তি মেট্রো দিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার।

তৃতীয়, মুখ্যমন্ত্রীর দৌলতে প্রথম বইমেলা পেয়েছে তার নিজস্ব ঠিকানা, ‘বইমেলা প্রাঙ্গণ’। প্রসঙ্গত, বিগত কয়েকবছর ধরে কলকাতা বইমেলা হয়ে থাকে সল্টলেক সেন্ট্রাল পার্কে। তার আগে হতো মিলন মেলা প্রাঙ্গণে। তারও আগে হতো কলকাতা ময়দানে। গত বইমেলায় মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, পাকাপাকি ভাবে বইমেলা হবে সল্টলেক সেন্ট্রাল পার্কে। যা নাম হবে 'বইমেলা প্রাঙ্গণ'।

করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হবার পরে, শেষ বইমেলায় (৪৫তম বইমেলা) ২৩ লাখ বইপ্রেমী মানুষ এসেছে। বই বিক্রির পরিমাণ ২৩ কোটি রুপি, যা অতীতের বইমেলার সমস্ত রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে।

এদিনের অনুষ্ঠানে ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায় বলেন, গত চার দশক ধরে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের সব থেকে বড় উৎসব আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলা। এবারে ৪৬তম বইমেলা বিগত বছরের সব রেকর্ড ভেঙে দেবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৫ ঘণ্টা, ২০ জানুয়ারি, ২০২২
ভিএস/এসএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa