ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৯ শাবান ১৪৪৫

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

সিপিএমের শুদ্ধি অভিযান

ভোটের প্রচার থেকে মাতবর নেতারা বাদ

রক্তিম দাশ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২৫ ঘণ্টা, মার্চ ২৬, ২০১১
ভোটের প্রচার থেকে মাতবর নেতারা বাদ

কলকাতা: বিধানসভা নির্বাচন সামনে রেখে পশ্চিমবঙ্গ সিপিএম দলের মধ্যে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছে। দলের রাজ্য দফতর আলিমুদ্দিন স্ট্রিট থেকে প্রতিটি জেলা কমিটিকে কড়া নির্দেশ দিয়ে দলের ইমেজ নষ্ট করছেন এমন মাতবর নেতাদের সর্ম্পকে সাবধান থাকতে বলা হয়েছে।



সিপিএম সূত্র থেকে জানা গেছে, ‘মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য বিভিন্ন জনসভায় এই ধরণের ক্ষমতাবান মাতবর নেতাদের সর্তক করে বলেছেন, ‘জনগণের ওপর মাতবরি করবেন না। যারা করবেন, তারা দল ছেড়ে চলে যান। ’

সূত্র আরও জানায়, নির্দেশে বলা হয়েছে, যে সব চিহ্নিত মাতবর নেতাদের এবার ভোটে প্রার্থী করা হয়নি। তাদের নিয়ে নির্বাচনী প্রচর চালানো যাবে না। সেই সঙ্গে ভোটে কোনো দায়িত্ব দেওয়া যাবে না।

কলকাতার রাজনৈতিক মহলের মতে, দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকার কারণে সিপিএমের জেলা কমিটি থেকে ব্লকস্তরের নেতৃত্বের মধ্যে একটা অংশ নানারকমের দুর্নীতি সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছিল। দলের নাম ভাঙিয়ে তারা প্রচুর সম্পত্তি ও অর্থ আয় করেছে। অভিযোগ আছে স্বজন পোষণেরও। তাছাড়াও ওই নেতাদের মাতবরি এমন জায়গায় চলে গেছে যে তারা সাধারণ মানুষকে মানুষ বলেই মনে করেন না।

এদের হাত থেকে দলকে বাঁচাতেই দেরিতে হলেও সিপিএম এবার পদক্ষেপ নেওয়া শুরু করেছে।

সিপিএমের এক রাজ্য কমিটির নেতা (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) বাংলানিউজকে শনিবার বলেন, ‘গত লোকসভা নির্বাচনে অপ্রত্যাশিত হারের পর দল যে শুদ্ধি কর্মসূচি নিয়েছে, তারই অংশ হিসেবে এই মাতবর নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে। এদের একটা বড় অংশের সদস্যপদ এবার নবায়ন করা হয়নি। ’

তিনি আরও বলেন, ‘এর ফলে এবার ভোটের প্রচারে দলের বহু প্রবীণ সমর্থককে পাওয়া গেছে। এরা নানা কারণে দলের কাজের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়ে বসে পড়েছিলেন। এ ধরণের প্রবীণ মানুষ, এলাকায় সৎ ও সজ্জন বলে পরিচিত মানুষকে প্রচারের কাজে যুক্ত করা গেছে। এর প্রভাব অবশ্যই এবারের ভোটে পড়বে। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৯০০ ঘণ্টা, মার্চ ২৬, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।