ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ মাঘ ১৪২৯, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৫ রজব ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

রোজায় ব্যবহৃত পণ্য আমদানিতে ঋণপত্র খোলার নির্দেশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট     | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৪, ২০২২
রোজায় ব্যবহৃত পণ্য আমদানিতে ঋণপত্র খোলার নির্দেশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের

ঢাকা: পবিত্র রমজান মাসে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মজুদ ও সরবরাহ নিশ্চিত করতে আমদানিতে সর্বোচ্চ সহায়তা দিতে ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এজন্য ভোজ্যতেল, ছোলা, ডাল, পেঁয়াজ, খেজুর এবং চিনিসহ রোজায় ব্যবহৃত সব পণ্যের আমদানি ঋণপত্র (এলসি) সহজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

রোববার (৪ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (এবিবি) বৈঠক শেষে এক ব্রিফিংয়ে এ কথা জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. মেজবাউল হক।

বৈঠক শেষে মেজবাউল হক বলেন, বৈঠকে বেশ কিছু বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এরমধ্যে অন্যতম রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের সরবারহ নিশ্চিত করতে আমদানি ঋণপত্র (এলসি) সহজীকরণের বিষয়টি। এ নিয়ে ব্যাংকগুলোর এমডিদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। রমজান মাসে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সরবারহ নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আমদানিতে সব ধরনের সহায়তা করতে সব ব্যাংকের এমডিকে নির্দেশনা দিয়েছেন।

এলসি বিষয়ে তিনি আরও বলেন, অপ্রয়োজনীয় এলসি খোলা বন্ধ রয়েছে। তবে রমজানে নিত্যপণ্যের আমদানি অর্থায়নের ক্ষেত্রে মার্জিনের হার ন্যূনতম পর্যায়ে রাখার জন্যও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

‘১০ লাখ টাকা পর্যন্ত ব্যাংকে রাখার ক্ষেত্রে আমানতকারীকে উৎস সম্পর্কে প্রশ্ন না তুলতে ব্যাংকগুলোকে পরামর্শ দেন গর্ভনর। বৈঠকে ব্যাংকের এমডিরা জানান গুজবের কারণে যে সব গ্রাহক আমানত তুলে নিয়েছিল তারা আবার ব্যাংকে ফিরছে’, বলেন মুখপাত্র।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৪, ২০২২ 
জেডএ/এসএ  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa