ঢাকা, সোমবার, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ জুন ২০২২, ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

অর্থনীতি-ব্যবসা

গণমাধ্যম রাজস্ব বোর্ডের ‘অংশীজন’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৫৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৫
গণমাধ্যম রাজস্ব বোর্ডের ‘অংশীজন’ ছবি : সংগৃহীত

ঢাকা: রাজস্ব ভাণ্ডার সমৃদ্ধকরণে গণমাধ্যম জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) ‘গুরুত্বপূর্ণ অংশীজন’ বলে মন্তব্য করেছেন এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান।
 
সর্বত্র রাজস্ববান্ধব সংস্কৃতি চালুতে রাজস্ব প্রশাসনের ‘সুশাসন ও উন্নততর ব্যবস্থাপনা নীতি’ বাস্তবায়নে গণমাধ্যমের সহায়তার প্রশংসা করেন তিনি।


 
বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) রাজস্ব বোর্ডের অংশীজন গণমাধ্যম প্রতিনিধিদেরকে প্রশংসা ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে এ মন্তব্য করেন চেয়ারম্যান।
 
একইসঙ্গে গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের জাতীয় রাজস্ব বোর্ড পরিবারের পক্ষ থেকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান তিনি।
 
তিনি বলেন, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা, কর্মচারীদের পাশাপাশি রাজস্ব আহরণ কার্যক্রমের সঙ্গে গণমাধ্যম প্রতিনিধিরাও সম্পৃক্ত।
 
বাংলাদেশের জাতীয় উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রায় গণমাধ্যম বন্ধুদের ভূমিকা, সাহসিকতা, যুগোপযোগী এবং নিরপেক্ষ বলেও মনে করেন তিনি।
 
তিনি বলেন, দারিদ্র্যমুক্ত, সুখী ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ নির্মাণে রাজস্ব ভাণ্ডারকে সমৃদ্ধ ও প্রচারণামূলক সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে গণমাধ্যম এনবিআরের ‘গুরুত্বপূর্ণ অংশীজন’।
 
সরকার ঘোষিত রূপকল্প’২০২১ সালের মধ্যে মধ্য আয়ের দেশ ২০৪১ সালে স্বাবলম্বী ও উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে এনবিআর ভূমিকা রেখে চলেছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।
 
চেয়ারম্যান বলেন, দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক অগ্রগতি সাধন ও অভ্যন্তরীণ সম্পদ আহরণ জোরদার করার দৃঢ় প্রত্যয় রয়েছে এনবিআরের।
 
রাজস্ব বোর্ড প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী জনগণের ওপর করের বোঝা না বাড়িয়ে করের আওতা বা করনেট সম্প্রসারণে নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান তিনি।
 
প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা সফলভাবে বাস্তবায়ন ও এনবিআরকে সঠিকভাবে পরিচালনার ক্ষেত্রে মিডিয়ার বন্ধুদের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন চেয়ারম্যান।
 
তিনি বলেন, অভ্যন্তরীণ রাজস্ব আয়ের ৮৫ শতাংশ আহরণ করে এনবিআর। চলতি অর্থবছর ১ লাখ ৭৬ হাজার ৩ শ’ ৭১ কোটি টাকা আহরণ করতে হবে। এ বৃহৎ লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সর্বজন স্বীকৃত চ্যালেঞ্জ। গণমাধ্যম এনবিআরের অংশীজন হিসেবে সহযোগিতা করলেও সে চ্যালেঞ্জ অতিক্রম ও লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব।
 
একটি ‘পূর্ণাঙ্গ করদাতাবান্ধব রাজস্ব প্রশাসন’ তৈরির লক্ষ্যে সকল অংশীদারদের সমন্বিত ও পারস্পরিক অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে চলতি অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের লক্ষ্যে এনবিআর নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বলেও জানান তিনি।  
 
বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৫
আরইউ/এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa