ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

পাইক‍ারি বাজারের দ্বিগুণ দাম খুচরা বাজারে

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৪২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৬
পাইক‍ারি বাজারের দ্বিগুণ দাম খুচরা বাজারে রাজধানীর সবজি বাজার/ ছবি: শাকিল

ঢাকা: রাজধানীর পাইকারি বাজারের তুলনায় খুচরা বাজারগুলোতে দ্বিগুণ দামে বিক্রি হচ্ছে সবজি। এতে সাধারণ ক্রেতাদের ভরা মৌসুমেও সবজি কিনতে হচ্ছে চড়া দামে।

শুক্রবার (৩০ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর কারওয়ানবাজারে সরেজমিনে গেলে এমন তথ্যই ওঠে আসে।

কারওয়ারবাজারের পাইকারি সবজি ব্যবসায়ী রহিম বলেন, আমরা পাইকারি বিক্রি করে লাভ বেশি একটা না করতে পারলেও সাধারণ ক্রেতাদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে খুচরা বিক্রেতারা।

এদিকে খুচরা বিক্রেতাদের দাবি, বেশি দামে ক্রয় করার কারণেই আমােদের চড়া দামে বিক্রি করতে হচ্ছে।

কারওয়ানজার পাইকারি বাজারে দেশি মুরগি ছোট মুরগি প্রতি পিচ ২০০ থেকে ২২০ টাকা, বড় ৪০০ থেকে ৪৫০ টাকা। ব্রয়লার কেজি প্রতি ১৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। হাঁস পিচ প্রতি ৩৫০ টাকায়। যা গত সপ্তাহের তুলনায় দেশি মুরগিতে পিস প্রতি ৫০ টাকা ও ব্রয়লার মুরগি কেজি প্রতি ১৫ টাকা বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে।
রাজধানীর সবজি বাজার/ ছবি: শাকিল

কারওয়ানবাজার পাইক‍ারি বাজারে গাজর (৫ কেজি) ৮০ টাকা, লাল শাক-পালংশাক আটি প্রতি ৭ টাকা, কাঁচামরিচ কেজি প্রতি ৩০টাকা, বিন্দু মরিচ ৪০ টাকা, বেগুন বড় (৫ কেজি) ১৫০ টাকা, কালো বেগুন (৫কেজি) ৮০-৯০ টাকা,  লম্বা বেগুন (৫ কেজি) ৮০-৮৫ টাকা, টমেটো (৫ কেজি) ১০০ টাকা, শালগম (৫কেজি) ৫০টাকা, উচতে (৫ কেজি) ৮০ টাকা, নতুন আলু কেজি প্রতি ৮-১০ টাকা, সিম বিচিওয়ালা (৫কেজি) ১২০ টাকা, সিম বিচি ছাড়া (৫ কেজি) ১০০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া পিচ প্রতি ৮০ টাকা, মুলা (৫কেজি) ৫০ টাকা, ফুলকপি পিচ প্রতি ১০টাকা, বাঁধাকপি পিচ প্রতি ১২টাকা, লাউ পিচ প্রতি ২০ টাকা, দেশি নতুন পেঁয়াজ  (৫ কেজি) ১১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে রাজধানীর শান্তিনগর খুচরা বাজারে ফুলকপি পিচ প্রতি ২০টাকা,বাঁধাকপি পিচ প্রতি ২৫ টাকা, লাউ পিচ প্রতি ৪০ টাকা, লম্বা বেগুন কেজি ৪০ টাকা, কালো বেগুন কেজি ৫০ টাকা, শশা কেজি ৪০ টাকা, মুলা কেজি ২০ টাকা, উচতে কেজি প্রতি ৪০ টাকা, করলা কেজি ৫০ টাকা, সিম বিচিওয়ালা কেজি ৪০ টাকা, সিম বিচি ছাড়া ৩০ টাকা, পটল কেজি ৬০ টাকা, নতুন আলু কেজি ২৫-৩০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া কেজি ২৫ টাকা,পেঁয়াজ নতুন ২৮ টাকা, মরিচ ৪০ টাকা, পেঁপে পিচ ২০ টাকা, লেবু হালি ২০ টাকা, শালগম কেজি ২০ টাকা, টমেটো কেজি ৪০টাকা,রসুন দেশি কেজি ১৬০ টাকা, আদা ১১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
রাজধানীর সবজি বাজার/ ছবি: শাকিল

শান্তিনগর কাঁচাবাজারের খুচরা বিক্রেতা হারুণ বাংলানিউজকে বলেন, পাইকারি বাজার থেকে তাদের বেশি দাম দিয়ে ভালো সবজি ক্রয় করতে হয়। এছাড়া সবজিগুলো ভালো না হলে বেশি দিন রেখে বিক্রি করা যায় না। ফলে ব্যবসায় লাভের চেয়ে ক্ষতির সম্ভাবনা বেশি। তবে পাইকারি বাজার থেকে সবজি আনতেও অনেক খরচ লাগে। সবমিলিয়ে বেশি দামেই তাদের সবজি বিক্রি করতে হচ্ছে।

শান্তিনগর খুচরা বাজারে সবজি ক্রয় করতে আসা ব্যবসায়ী আলম বাংলানিউজকে বলেন, বিক্রেতাদের কথা মতোই আমাদের কিনতে হচ্ছে। তবে সবজির দাম আগের চেয়ে অনেক বেড়েছে। কিছু বললেই বিক্রেতারা বলেন, বেশি দামে কিনতে হচ্ছে তাই বেশি দামে বিক্রি করি। কিন্তু এখন সরকারের উচিত বাজার মনিটরিং করা। কেননা পাইকারি বাজারের তুলনায় ৫-১০ টাকা বেশি মেনে নেয়া যায়। কিন্তু দ্বিগুন দাম হলে তো মেনে নেওয়া যায় না। ফলে আমাদের মতো মধ্যম আয়ের মানুষের পড়তে হচ্ছে সমস্যায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০,২০১৬
এসজে/বিএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa