ঢাকা, বুধবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

‘আমার হাতেই প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশে পৌঁছাবে’

ইসমাইল হোসেন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০০৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০১৭
‘আমার হাতেই প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশে পৌঁছাবে’ বিচ কার্নিভালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। ছবি: বাদল

কুয়াকাটা থেকে: আগামী দু’বছরে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার ৮ শতাংশে যাবে বলে মনে করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। আর এই প্রবৃদ্ধি তার হাত ধরেই সম্ভব বলে জানিয়েছেন তিনি।

শনিবার (১৪ জানুয়ারি) সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটায় তিনদিনব্যাপী বিচ কার্নিভাল’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী একথা বলেন।  
 
সরকারের আগামী দুই বছরকে ‘গোল্ডেন যুগ’ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, প্রবৃদ্ধি সাড়ে ৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধির বৃত্ত থেকে পেরিয়ে ৭ শতাংশের ঊর্ধ্বে গিয়েছি।

আমাদের স্বপ্ন পাঁচ বছরের মধ্যে ১০ শতাংশে পৌঁছবো, এটা একটা ভাল স্বপ্ন, সম্ভবপর স্বপ্ন বলে আমার মনে হয়।  
 
‘মনে হয় আমার হাতে প্রবৃদ্ধি অন্তত ৮ শতাংশে পৌঁছবো, আমার হাতে মানে আগামী দুই বছর। ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধিতে পৌঁছানো মানে হলে সারা দেশে ব্যাপক উন্নয়ন। ’
 
সরকারের নীতিমালায় কেউ পিছিয়ে থাকতে পারে না জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমরা সবাইকে নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই। দেশে গরীবের সংখ্যা এখন ২২ শতাংশ, সব থেকে গরিবের সংখ্যা দ্রুত হারে কমিয়ে আনা হচ্ছে। বৈষম্য নিরসনে বাংলাদেশ একটা অনন্য দেশ। অতিদারিদ্র ১০ শতাংশের কাছাকাছি। আমাদের দেশে দারিদ্রের সংখ্যা সাড়ে তিন কোটি। সাড়ে চার বছরের মধ্যে সবাইকে দারিদ্র সীমার মধ্যে বের করে নিতে হবে। চ্যালেঞ্জটা অনেক বড় হলেও দেশের মানুষ অত্যন্ত বুদ্ধিমান। এজন্য পড়ালেখা না জানলেও কোনো প্রযুক্তি হাতে তুলে দিলে তা গ্রহণ করে নেয়।
 
আমাদের কৃষক, চাষি, শ্রমিক অত্যন্ত দক্ষ জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, এটা আমাদের কৃতিত্ব- বলেন অর্থমন্ত্রী।
 
১৯৯৬ সাল থেকে দেশে গুনগত পরিবর্তন এসেছে জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, মাঝে মাঝে কিছু বিপদ আসে সেগুলো অতিক্রম করে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। বিপদের কারণে গতিটা একটু ধীর হয়ে যায়। আমার মনে হচ্ছে, এখন বার্নিং লুটিং- এই ধরনের কালচারের দিন শেষ হয়ে গেছে। আমাদের দেশের মানুষের কাছে বার্নিং লুটিংয়ের দিন শেষ হয়ে গেছে। আমাদের দেশের মানুষ অনেক ব্যস্ত। তারা আগুন জ্বালানো, যখন তখন ধর্মঘট এগুলো সহ্য করে না এবং বিরোধী দল খুব ভালোভাবে বুঝেছেন। তারা এক বছরে নীতি পরিহার করেছেন।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ, সংসদ সদস্য রুহুল আমিন হাওলাদার, মাহবুবুর রহমান, আ খ ম জাহাঙ্গীর, শওকত হাসানুর রহমান, এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান, স্থানীয় সরকার সচিব আব্দুল মালেক, পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব  প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০১৭
এমআইএইচ/এসএইচ

**সাগরকন্যা কুয়াকাটার পথে স্বস্তি, তবে...
**কুয়াকাটায় ‘মেগা বিচ কার্নিভাল’র উদ্বোধন

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa