ঢাকা, সোমবার, ১১ আশ্বিন ১৪২৯, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২৮ সফর ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

বাণিজ্য মেলার নিরাপত্তায় থাকছে এক হাজার পুলিশ

প্রশান্ত মিত্র, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৫৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৭
বাণিজ্য মেলার নিরাপত্তায় থাকছে এক হাজার পুলিশ এবারের বাণিজ্য মেলার প্রধান ফটক/ফাইল ছবি

ঢাকা: বরাবরের মতো এবারো নতুন বছরের প্রথম দিন থেকেই শুরু হচ্ছে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা-২০১৮। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) আয়োজিত রাজধানীর প্রাণকেন্দ্রে মাসব্যাপী এ মেলার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মেলায় বিপুল সংখ্যক দেশি-বিদেশি দর্শনার্থী, ক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের সমাগম ঘটে থাকে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় মেলাকে নির্বিঘ্ন করতে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।

মেলার সার্বক্ষণিক নিরাপত্তায় প্রতিদিন তিন শিফটে দায়িত্ব পালন করবে পুলিশ। পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকেও বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্য মোতায়েন থাকবে।

মেলা প্রাঙ্গণসহ আশপাশের পুরো এলাকাকে সিসিটিভি ক্যামেরার আওতায় নিয়ে আসা হবে। ডিএমপি কন্ট্রোলরুম থেকে সেসব ক্যামেরাগুলো সার্বক্ষণিক মনিটরিং করা হবে।

মেলার ভেতরের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে থাকবে ওয়াচ টাওয়ার। দর্শনার্থীদেরকে আর্চওয়ের ভেতর দিয়ে তল্লাশি করে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে। মেলার বাইরেও পুলিশের চেক পোস্ট এবং ফুট পেট্রোলিং টিম দায়িত্ব পালন করবে।

এছাড়া মেলায় ভ্রমণ নির্বিঘ্ন করতে ইভটিজিং, ছিনতাই, অজ্ঞান ও মলম পার্টি প্রতিরোধে প্রস্তুত থাকবে পুলিশের বিশেষ টিম। দর্শনার্থীদের জন্য আনন্দঘন পরিবেশ নির্বিঘ্ন করতে নিরাপত্তা বাহিনীর পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ আদালতও কাজ করবে।

এ বিষয়ে ডিএমপি’র তেজগাঁও বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) সাত্যকি কবিরাজ ঝুলন বলেন, বাণিজ্য মেলায় প্রতিদিন তিন শিফটের পুলিশ ফোর্সসহ মোট এক হাজার ৬৯ জন পুলিশ সদস্য নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করবেন।

রোববার বিকেল পর্যন্ত একশ’টি সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, তবে মেলার ভেতরে ও বাইরে কমপক্ষে দেড়শ’টি ক্যামেরা স্থাপনের জন্য কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আমরা কথা বলেছি। মেলাস্থলের সার্বিক নিরাপত্তায় প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

রাজধানীর শেরে-বাংলা নগরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের পাশের মাঠে ১ জানুয়ারি (সোমবার) থেকে এ মেলা শুরু হবে। চলবে আগামী ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত।

এবারও বাণিজ্য মেলায় থাকছে বঙ্গবন্ধু মিউজিয়াম। যেখানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি ও ছবির পাশাপাশি থাকবে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের বিভিন্ন ছবি। মেলার মূল ফটকেই থাকবে ডিজিটাল স্ক্রিন। এই স্ক্রিন থেকেই এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাবে পুরো মেলা।

মেলাকে ভিন্ন আঙ্গিকে সাজাতে ফিশ ও বার্ড অ্যাকুরিয়াম প্রদর্শন করা হবে, শিশুদের জন্য থাকবে পার্ক, গেমিং জোন ও খেলার উপকরণ। এছাড়াও থাকছে ফায়ার সার্ভিস স্টেশন, বিদ্যুতের সাব স্টেশন এবং মেলার বাইরে গাড়ি পার্কিংয়ের নির্ধারিত স্থান।

এবারের মেলায় ১৪ ক্যাটাগরিতে দেশ-বিদেশের ৫২০টি স্টল ও প্যাভিলিয়ন বরাদ্দ পেয়েছে। যেখানে বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত, পাকিস্তান, চীন, মালয়েশিয়া, ইরান, থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, সিঙ্গাপুর, অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ কোরিয়া, জার্মানি, নেপাল, হংকং, জাপান, আরব আমিরাত, মরিশাস, ঘানা, মরক্কো এবং ভুটানের প্রতিষ্ঠানগুলো নিজেদের উৎপাদিত পণ্য প্রদর্শন করবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৭
পিএম/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa