ঢাকা, রবিবার, ২২ মাঘ ১৪২৯, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৩ রজব ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

পুঁজিবাজার ভালো হবে এতে কোনো সন্দেহ নেই: মুহিত

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬৪৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৫, ২০১৮
পুঁজিবাজার ভালো হবে এতে কোনো সন্দেহ নেই: মুহিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: ২০১০ সালে ধসের পর নীতিমালা এবং আইন-কানুন সংস্কারের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রক সংস্থা একটি আদর্শ প্রতিষ্ঠানে রুপান্তরিত হয়েছে উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, কমিশন এখন একটি সত্যিকারের পুঁজিবাজার গঠন করেছে। এতে আমি কমিশনের ওপর সস্তুষ্ট। আশা করছি, পুঁজিবাজার ভালো হবে এতে কোনো সন্দেহ নেই।

মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন অর্থমন্ত্রী।

মুহিত বলেন, বর্তমানে নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে নিয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের মাথা ব্যথা দূর হয়েছে।

তাদের কাজ তারাই করে। তারা কোনো উপদেশ নেয় না, আমরাও দেই না।

তিনি বলেন, বিএসইসি সত্যিকার অর্থেই পুঁজিবাজার সৃষ্টি করতে পেরেছে। কিন্তু এখনো বাজার বিস্তার লাভ করেনি। তবে আইপিও (প্রাথমিক গণপ্রস্তাব) ভালোভাবে হচ্ছে। এখন পুঁজিবাজার নিয়ে আমি চিন্তিত নই, উচ্চমানের পুঁজিবাজার সৃষ্টিতে তারা সক্ষমতা অর্জন করেছে। এজন্য কমিশনের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

অতীতের কথা তুলে ধরে অর্থমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগের আমলে পুঁজিবাজারে দু’বার ধস হয়েছে। এটা সুখকর ছিলো না। বরং আমাদের জন্য কলঙ্কজনক ছিলো। ফলে দ্বিতীয়বার বাবেল হওয়ার পর ২০১১ সালে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন পুনঃগঠন করি। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সহযোগিতা নিই। যাতে বাবল সৃষ্টি না হয়, বাবলের পতন না হয়, তার জন্য কমিশনকে নির্দেশ দেই। আর কমিশন সেই কাজটি সার্থকভাবে সম্পন্ন করেছে।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের উন্নয়নে অর্থমন্ত্রীর ভূমিকা অনস্বীকার্য জানিয়ে বিএসইসির চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন বলেন, অর্থমন্ত্রীর আত্মত্যাগ অস্বীকার করার সুযোগ নেই। তিনি পুঁজিবাজারের যেকোনো প্রয়োজনে এগিয়ে এসেছেন। বাজার এখন স্থিতিশীল এবং উন্নতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। এর পেছনে সবচেয়ে বড় অবদান অর্থমন্ত্রীর। তার নির্দেশনায় স্টক এক্সচেঞ্জ ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন হয়েছে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলাম এবং বিএসইসির কমিশনাররা বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

বাংলাদেশ সময়: ০১৪৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৮
এমএফআই/আরবি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa