ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৮ জানুয়ারি ২০২২, ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

অর্থনীতি-ব্যবসা

সপ্তাহজুড়ে সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২২১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৪, ২০২১
সপ্তাহজুড়ে সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে

ঢাকা: কয়েক সপ্তাহ পতনে অনেকটাই চিন্তিত ছিলেন বিনিয়োগকারীরা। বাংলাদেশ ব্যাংক ও বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) বৈঠকের খবরে বুধবার (১ ডিসেম্বর) পুঁজিবাজারে সূচকের বড় উত্থান হয়।

তবে, বৈঠকে কোন সিদ্ধান্ত না আসায় শেষ কার্যদিবসে সূচকের পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে।

বিদায়ী সপ্তাহে (২৮ নভেম্বর থেকে ২ ডিসেম্বর) পুঁজিবাজারে সূচক বাড়লেও লেনদেন ১২৮৫ কোটি টাকা কমেছে। গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) এক হাজার ২৬৬ কোটি এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ১৯ কোটি টাকার লেনদেন কমেছে।

ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসই পাঁচ হাজার ৩৯ কোটি ৯৭ লাখ ৭৬ হাজার ৪৪০ টাকার লেনদেন হয়েছে। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ছয় হাজার ৩০৬ কোটি ২৫ লাখ ৫ হাজার ১৭ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন এক হাজার ২৬৬ কোটি ২৭ লাখ ২৮ হাজার ৫৭৭ টাকা বা ২০ শতাংশ কমেছে।  

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৮৪ দশমিক ১১ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ২৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ছয় হাজার ৯৩৬ দশমিক ২০ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১৬ দশমিক ৫৩ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ১৫ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৩৩ দশমিক ৭ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ২৭ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে এক হাজার ৪৫৮ দশমিক ৯২ পয়েন্টে এবং দুই হাজার ৬৩৫ দশমিক ৯৪ পয়েন্টে।

বিদায়ী সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৫ লাখ ৪৬ হাজার ৯৭ কোটি ৩৫ লাখ ৬৭ হাজার ৮৭৮ টাকায়। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়ায় ৫ লাখ ৫২ হাজার ৮৪০ কোটি ৬২ লাখ ৬৯ হাজার ৬৯১ টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ছয় হাজার ৭৪৩ কোটি ২৭ লাখ ১ হাজার ৮১৩ টাকা বা ১ দশমিক ২৩ শতাংশ বাজার মূলধন বেড়েছে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইর সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) বেড়েছে। গত সপ্তাহের শুরুতে ডিএসইর পিই ছিল ১৮.১৭ পয়েন্টে। যা সপ্তাহ শেষে ১৮.৪১ পয়েন্টে অবস্থান করছে। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে পিই রেশিও শূন্য দশমিক ২৪ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৩২ শতাংশ বেড়েছে। বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৮০টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ১৭৬টির বা ৪৬ দশমিক ৩২ শতাংশের, কমেছে ১৬৮টির বা ৪৪ দশমিক ২১ শতাংশের এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির বা ৯ দশমিক ৪৭ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর।

সপ্তাহজুড়ে লেনদেনের শীর্ষে থাকা ১০ কোম্পানি হলো- বেক্সিমকো লিমিটেড, ওয়ান ব্যাংক, ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংক, আইএফআইসি ব্যাংক, ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, বেক্সিমকো ফার্মা, জিনেক্স ইনফোসিস, ব্র্যাক ব্যাংক এবং ওরিয়ন ফার্মা।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ২৪২ কোটি ৬৫ লাখ ৯৭ হাজার ৭২৬ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ২৬১ কোটি ৯২ লাখ ১৮ হাজার ৪৬০ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে লেনদেন ১৯ কোটি ২৬ লাখ ২০ হাজার ৭৩৪ টাকা বা ৭ শতাংশ কমেছে।

সপ্তাহটিতে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৯৬ দশমিক ৭৫ পয়েন্ট বা শূন্য দশমিক ৯৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০ হাজার ২৫৪ দশমিক ৮৭ পয়েন্টে।   সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ৩৩৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১৫৩টির দর বেড়েছে, ১৬২টির কমেছে এবং ২৪টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২২১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৪, ২০২১
এসএমএকে/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa