ঢাকা, বুধবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষা

টেলিটক-পিএসসিকে দুষলেন ৩৩তম বিসিএস পরীক্ষায় বঞ্চিতরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ১০, ২০১২

ঢাকা: ৩৩তম বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নিতে না পারায় মোবাইল কোম্পানি টেলিটককে দুষলেন বঞ্চিত প্রার্থীরা। বঞ্চিত প্রার্থীদের পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ করে না দিলে প্রয়োজনে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের অফিস (পিএসসি) ঘেরাও করার ঘোষণা দিয়েছেন তারা।



মঙ্গলবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ৩৩তম বিসিএস বঞ্চিত প্রার্থীরা এ ঘোষণা দেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন আতিকুর রহমান। এ সময় রাইসুল ইসলাম, এজাজুল আল ইমরান, তারেক রহমানসহ আরও প্রায় অর্ধশত প্রার্থী উপস্থিত ছিলেন।

প্রার্থীরা অভিযোগ করেন, বাংলাদেশে টেলিটকের গ্রাহক সংখ্যা খুবই কম। এছাড়া সারাদেশে ইন্টারনেট সুবিধাও নেই। তাই পুরো ব্যাপারটিতেই ছিল ভোগান্তি। যাদের টেলিটক সিম নেই, তাদের ধার বা কিনতে হয়েছে। আবার ইন্টারনেট ও বিদ্যুৎ পাওয়াও সহজলভ্য নয়।

তারা আরও জানান, ফরম পূরনের জন্যে পিএসসি এবং টেলিটকের যে ওয়বসাইট দেওয়া হয়েছে সেখানে সবসময় প্রবেশ করা যেত না। বিশেষ করে শেষ দু’দিন তো প্রবেশই করা যায়নি। এ ব্যার্থতা পিএসসি এবং টেলিটকের। কাজেই পিএসসিকেই এর দায়িত্ব নিতে হবে।

প্রার্থীরা জানান, তারা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অনলাইনে আবেদন করেছিলেন। টেলিটক ও বিপিএসসি’র নিয়ম অনুসারে প্রথম পিন নাম্বার দিয়ে পরীক্ষার ফি বাবদ ৫০০ টাকার এসএমএস পাঠিয়েছে। কিন্তু ফিরতি এসএমএস’র মাধ্যমে প্রবেশপত্রের পাসওয়ার্ড দেওয়া হয়নি। এমনকি টাকাও কাটেনি।  
গত ৪ দিন ধরে এ ব্যাপারে পিএসসিতে লিখিত ও মৌখিকভাবে আবেদন করলেও কোনো সিদ্ধান্ত দিচ্ছে না কমিটি।

বঞ্চিত শিক্ষার্থী আরিফ বলেন, ‘পিএসসি বলছে যারা নির্ধারিত সময়ে টাকা জমা দিতে ব্যর্থ হয়েছে তাদের বিষয়টি আমলে নেওয়ার সুযোগ নেই। কিন্তু আমরা নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই আবেদন করেছি। কিন্তু পিএসসি ও টেলিটক আমাদের নির্ধারিত সময়ে পাসওয়ার্ড দিতে পারেনি। ’

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘যেহেতু নির্ধারিত সময় ছিল ৭ এপ্রিল রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত, তাই এ সময়ের মধ্যে আবেদন প্রক্রিয়া সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার দায়িত্ব পিএসসি ও টেলিটক কর্তৃপক্ষের। কিন্তু তারা সেটি করতে ব্যর্থ হয়ে এখন আমাদের ওপর দায় চাপাচ্ছে। ’

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, ‘আমাদের দাবি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেওয়া হোক। আর সেটি করা না হলে আমরা আদালতে যাব। প্রয়োজনে বিক্ষোভ মিছিল এবং পিএসসি ঘেরাও করা হবে। ’

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২৮ মার্চ ৪ হাজার ২০৬টি শূন্য পদে নিয়োগের জন্য ৩৩তম বিসিএসের প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এবারই প্রথমবারের মতো অনলাইন পদ্ধতিতে বিসিএসের আবেদনপত্র নিয়েছে পিএসসি।

বাংলাদেশ সময় ১৪৩১, এপ্রিল ১০, ২০১২
এমএন
সম্পাদনা: ওবায়দুল্লাহ সনি, নিউজরুম এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa