ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

শিক্ষা

ছাত্রী নির্যাতনে শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্ত, এমপিও স্থগিত

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১২

ঢাকা: কেরানীগঞ্জের তেঘরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে শারীরিক নির্যাতন করায় সহকারী শিক্ষক (সমাজ বিজ্ঞান) শেখ জারজিস আহম্মেদের এমপিও স্থগিত করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর।

একইসঙ্গে অভিযুক্ত শিক্ষককে আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে সাময়িক বরখাস্ত করে তা মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরকে অবহিত করার জন্য বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটিকে (এমএমসি) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।



সোমবার বিকেলে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর থেকে জারিকৃত এক নিদের্শে এ কথা বলা হয়েছে।
   
উল্লেখ্য, শিক্ষক কর্তৃক তেঘরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ওই ছাত্রীর ওপর নির্যাতনের ঘটনাটি ঘটে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি। কিন্তু ঘটনাটি শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের প্রথম নজরে আসে রোববার।

এ সময় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর নোমান-উর-রশীদকে একদিনের মধ্যে সরেজমিন তদন্ত করে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি। প্রফেসর নোমান-উর-রশীদ সোমবার বিকেলে শিক্ষামন্ত্রীর কাছে এ তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।

শিক্ষা অধিদফতরের নির্দেশে যথাসময়ে ব্যবস্থা না নেওয়ায় প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধেও বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটিকে বলা হয়েছে এবং অনতিবিলম্বে শিক্ষক-অভিভাবক কমিটি গঠনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি এ ধরনের নির্যাতনের ঘটনার বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে ব্যর্থ হওয়ায় বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটিকেও সতর্ক করেছে শিক্ষা অধিদফতর।

এদিকে ছাত্রীর পিতা গত রোববার কেরানীগঞ্জ থানায় এ সংক্রান্ত একটি মামলা দায়ের করেছেন বলে জানা গেছে। মামলার প্রেক্ষিতে রোববার রাতেই পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষক জারজিস আহম্মেদকে গ্রেফতার করেছে বলে শিক্ষা অধিদফতর জানায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১২

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa