ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ শাবান ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

মনোনয়নপত্র বাতিল, যা বললেন হিরো আলম

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩, ২০২৩
মনোনয়নপত্র বাতিল, যা বললেন হিরো আলম

বগুড়া: উকিলের ভুলে মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে বলে জানিয়েছেন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৪ (কাহালু ও নন্দীগ্রাম) আসনে বাংলাদেশ কংগ্রেসের প্রার্থী আলোচিত ইউটিউবার আশরাফুল হোসেন আলম (হিরো আলম)।

এসব ভুল শুধরে ফের মনোনয়ন নেওয়ার চেষ্টা করবেন এবং এজন্য প্রয়োজন হলে হাইকোর্টে যেতে হলেও যাবেন বলে জানিয়েছে তিনি।

রোববার (০৩ ডিসেম্বর) দুপুরে হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিলের বিষয়টি জানান বগুড়া জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম।

এরপর গণমাধ্যমকে এসব কথা বলেন হিরো আলম।

চারটি ভুলের কারণে তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে বলে জানা গেছে।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, আশরাফুল হোসেন ওরফে হিরো আলম রাজনৈতিক দলের প্রার্থী হয়েও মনোনয়নপত্রে নিজেকে স্বতন্ত্র দাবি করেছেন। সেই ক্ষেত্রে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে মোট ভোটারের এক শতাংশ সমর্থন ফরমও তিনি জমা দেননি৷ মনোনয়নপত্রের হলফনামায় আশরাফুল হোসেন সম্পদের বিবরণী জমা দেননি৷ এছাড়াও তিনি মনোনয়নের হলফনামাতে স্বাক্ষরই করেননি। এজন্য তার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

মনোনয়নপত্র বাতিলের পর হিরো আলম নিজের এসব ভুল স্বীকার করেন।  

তিনি বলেন, মানুষ মাত্রই ভুল হয়। আমারও ভুল হয়েছে। আমি দেশের বাইরে ছিলাম। আমার উকিল দুইটা ভুল করেছেন। উকিল ভুল করা মানে আমিই দুইটা ভুল করেছি। হলফনামায় স্বাক্ষর ছিল না এটা একটা ভুল ধরা হয়েছে ৷ দ্বিতীয়ত ভুল করে স্বতন্ত্র প্রার্থীর ফরম পূরণ করা হয়।

তবে মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ায় দুশ্চিন্তার কারণ নেই বলে জানালেন এ আলোচিত ইউটিউবার। এর আগেও তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছিল এবং তিনি উচ্চ আদালতে রিট করে মনোনয়ন বৈধ করেছিলেন বলে স্মরণ করিয়ে দেন হিরো আলম।  

তিনি বলেন, সবাই জানেন আমার প্রার্থিতা বাতিল নতুন কিছু না। হলফনামায় স্বাক্ষর ইচ্ছা করলে তারা এখানে নিতে পারত। আমি এখানে দিতে পারতাম। অন্যান্য প্রার্থীরা এ বিষয়ে অবজেকশনে করেছে তাই আমাকে বাতিল করেছে। এটা এমন কিছু না। আমাকে এর আগে যতবারই বাতিল করা হয়েছে, ততবারই আমি নিয়ে এসেছি। এবারও বাতিল করেছে। ইনশাআল্লাহ হিরো আলম ভোটের মাঠে থাকবে৷ আমি আবারও বৈধতা ছিনিয়ে আনার চেষ্টা করব। প্রয়োজনে আবারও হাইকোর্টে যাব। মানুষের ভালোবাসা নিয়ে নির্বাচনের মাঠে থাকব।  

উল্লেখ্য, গত ১ ফেব্রুয়ারি বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) ও বগুড়া-৬ (সদর) আসনের উপ-নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়েছিল। পরে নির্বাচন কমিশনে আপিল করে প্রার্থিতা ফেরত না পেয়ে হাইকোর্টে রিট করেন।  

সে সময় হাইকোর্টের আদেশে তিনি নির্বাচনে ফিরে আসেন। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে বগুড়া-৪ আসনে একতারা প্রতীকে ৮৩৪ ভোট কম পেয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত জাসদের প্রার্থী এ কে এম রেজাউল করিমের কাছে হারেন তিনি।

রিটার্নিং কর্মকর্তা জানিয়েছেন, মনোনয়নপত্র বাতিলের আদেশ উঠিয়ে হিরো আলম আগামী ৫ থেকে ৯ ডিসেম্বরে মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনে আবেদন করতে পারবেন।  

প্রসঙ্গত, বুধবার (২৯ নভেম্বর) বগুড়া-৪ আসনে সুপ্রিম পার্টির থেকে মনোনয়ন তুলেছিলেন হিরো আলমের পক্ষে তার ব্যক্তিগত সহকারী সুজন রহমান শুভ। পরবর্তীতে রাতারাতি তা পাল্টিয়ে বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) বাংলাদেশ কংগ্রেস থেকে মনোনয়ন জমা দেন হিরো আলম ৷

বগুড়া সিনিয়র নির্বাচন অফিসারের কার্যালয় থেকে পাঠানো দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে মনোনয়নপত্র গ্রহণকারীর সম্ভাব্য প্রার্থীর তালিকাতে দেখা যায়, বগুড়া-৪ (কাহালু ও নন্দীগ্রাম) আসনে মোট ১২জন প্রার্থী মনোনয়ন উত্তোলন করেছেন। ১২ জনের তালিকার ১১ নম্বরে আশরাফুল হোসেন আলমের নাম রয়েছে। সেখানে আশরাফুল আলমের নামের পাশে দলের নাম সুপ্রিম পার্টি এবং তার বাড়ির ঠিকানা এরুলিয়া লেখা রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৩, ২০২৩
কেইউএ/এসএএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।