ঢাকা, রবিবার, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪ শাবান ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

ইসিতে আপিল করে গাইবান্ধা-৫ আসনে প্রার্থিতা ফিরে পেলেন বুবলী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩২৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১০, ২০২৩
ইসিতে আপিল করে গাইবান্ধা-৫ আসনে প্রার্থিতা ফিরে পেলেন বুবলী

ঢাকা: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধা-৫ (সাঘাটা-ফুলছড়ি) আসনে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী জাতীয় সংসদের প্রয়াত ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়ার মেয়ে ফারজানা রাব্বী বুবলী।  

রোববার (১০ ডিসেম্বর) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে আপিল আবেদনের ওপর শুনানি শুরু করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল নেতৃত্বাধীন কমিশন।

শুনানি শেষে বুবলীর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণার পক্ষে আপিল শুনানি মঞ্জুর করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।  

মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণার বিষয়টি গণমাধ্যমে বুবলী নিশ্চিত করেছেন। তিনি প্রার্থিতা ফিরে পেতে গত বুধবার ইসিতে আপিল করেছিলেন।  

প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার খবরে মিষ্টি বিতরণ ও উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলায় বুবলীর কর্মী-সমর্থকরা। এ ছাড়া স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সব সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীসহ সর্বস্তরের জনগণের মধ্যে উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়। তারা সাঘাটা ও ফুলছড়ির সব এলাকা, বিভিন্ন হাট-বাজার ও চা দোকানে আনন্দে মিষ্টি বিতরণ করেন।

প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার খবরে সাঘাটা উপজেলার হাট ভরখালীর সম্রাট মিয়া বলেন, বুবলী আপার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা হওয়ায় আমরা সবাই খুবই আনন্দিত। আমি মনে করি, আগামী ৭ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে উনি বিজয়ী হবেন। এলাকার উন্নয়ন ওনাকে দিয়েই সম্ভব।  

ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের তাজু মিয়ার কাছে বুবলীর প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা মনে-প্রাণে চেয়েছিলাম সব ষড়যন্ত্র জাল ছিন্ন করে বুবলী আপার মনোনয়ন বৈধ হবে। আজ হয়েছেও তাই। আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জানাই। বুবলী আপা একজন যোগ্য প্রার্থী। অন্যান্য প্রার্থীর তুলনায় দুই থেকে তিন গুণ ভোট বেশি পেয়ে তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হবেন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন। আমরা তার জন্য মন ভরে দোয়া করি।

ফারজানা রাব্বী বুবলী গাইবান্ধা-৫ আসনে নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী। তিনি সেখানকার সাতবারের সংসদ সদস্য প্রয়াত জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়ার মেয়ে ও ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।  

বুবলী বলেন,  প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে আমার বাবা ২০০৮ সাল থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত ছিলেন। আমি সাঘাটা-ফুলছুড়িতে যে জনসমুদ্র দেখেছি তাতে আমি শতভাগ আশাবাদী জয়লাভ করবো।  

তিনি  বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই আমরা এতোদূর পর্যন্ত এসেছি, বঙ্গবন্ধুর সৈনিক আমরা। আমি তার বিরুদ্ধে কোনো কাজ করবো না ও তার বিরুদ্ধেও যাবো না। স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রধানমন্ত্রী ওপেন করে দেওয়ার কারণেই আমি আজ এখানে এসেছি, নির্বাচন করছি। বাকিটুকু আল্লাহর ইচ্ছা। আপনারা আমাদের জন্য দোয়া করবেন। আমার বাবার যে অসমাপ্ত কাজগুলো সাঘাটা-ফুলছড়িতে আছে তা আরো এগিয়ে নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর সামনে আমি যাবো ও বলবো। আমি জানি, আমাদের মা দরদী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেটা কখনোই ফেলায় না। তিনি প্রত্যেক এলাকায় বড় বড় উন্নয়ন করেছেন। পুরো বাংলাদেশকে তিনি উন্নয়নের ধারায় নিয়ে গেছেন।  

জানা গেছে, অতি ‘সামান্য ভুল, তুচ্ছ কারণকে’ কেন্দ্র করে গাইবান্ধা জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ফারজানা রাব্বী বুবলীর মনোনয়ন বাতিল করেন। পরে প্রচলিত আইন অনুসারে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর আবেদন করলে কমিশন তা বৈধ ঘোষণা করে।

বাংলাদেশ সময়: ২৩২৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১০, ২০২৩
আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।