ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

চক্ষুলজ্জার জন্য হলেও সরে যান, ইসির উদ্দেশে আমান

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ৪, ২০২০
চক্ষুলজ্জার জন্য হলেও সরে যান, ইসির উদ্দেশে আমান ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: নির্বাচন কমিশনের উদ্দেশে ঢাকা-১৮ আসনে বিএনপির উপ-নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক আমানউল্লাহ আমান বলেছেন, সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন না করতে পারলে চক্ষুলজ্জার জন্য হলেও নির্বাচন কমিশনের পদ থেকে সরে যান।

ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে দ্রুত কার্যকর ও দৃশ্যমান পদক্ষেপ নিতে নির্বাচন কমিশনের কাছে দাবি জানান তিনি।

বুধবার (৪ নভেম্বর) বিকেলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদার সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের কাছে এসব কথা বলেন আমানউল্লাহ আমান।

তিনি বলেন, নির্বাচন একটি সাংবিধানিক অধিকার। সাংবিধানিক পদে থেকে  সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন না করতে পারলে নির্বাচন বন্ধ করে দিন।

আমান আরও বলেন, প্রার্থী যদি গণসংযোগ করতে না পারেন, ভোটার যদি ভোটকেন্দ্রে যেতে না পারেন, এজেন্টরা যদি ভোটকেন্দ্রে যেতে ভয় পান তাহলে ভোট করে লাভ কী? ভোট বন্ধ করে দেওয়া উচিত।

তিনি বলেন, বিএনপি গণতান্ত্রিক দল, গণতন্ত্র বিশ্বাস করে গণতন্ত্র রক্ষার জন্য এই প্রতিকূলতার মধ্যেও আমরা নির্বাচন করছি। আমরা এর সর্বশেষ অবস্থা দেখতে চাই। নির্বাচন কমিশন ও সরকার কী পদক্ষেপ নেয়, এরপর সেটা জনগণ সিদ্ধান্ত নেবে।

বুধবার (৪ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টা থেকে ঘণ্টাব্যাপী আগারগাঁয়েও ইসি কার্যালয়ে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা, নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে বিএনপির পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দলে ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমানউল্লাহ আমান, উপ-নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য আব্দুস সালাম, নাজিম উদ্দীন আলম, ঢাকা-১৮ আসনের বিএনপির প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর ও বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৪, ২০২০ 
এসএমএকে/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।