ঢাকা, বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮ মহররম ১৪৪৪

নির্বাচন ও ইসি

আগস্টে সংলাপের ভাবনা ইসির

ইকরাম-উদ দৌলা, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৮ ঘণ্টা, জুলাই ৫, ২০২২
আগস্টে সংলাপের ভাবনা ইসির

ঢাকা: আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সব নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপে বসবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এক্ষেত্রে আগস্টের প্রথম সপ্তাহ থেকে প্রধান অংশীজনের সঙ্গে বসার কথা ভাবছে সংস্থাটি।

 

ইসি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ইতোমধ্যে একটি খসড়া প্রস্তুত করা হয়েছে। শিগগিরই এটি কমিশনের কাছে উপস্থাপন করা হবে। সেখানে জুলাইয়ের শেষ সপ্তাহ থেকে আগস্টের প্রথম সপ্তাহে সংলাপ শুরু করার প্রস্তাব রাখা হয়েছে। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে কমিশন।  

সম্প্রতি প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়ালও জানিয়েছেন, আগস্টে দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ করা হতে পারে।  

তবে ইসির ডাকে সবগুলো দল সাড়া দেবে কি-না, তা নিয়ে খোদ ইসি কর্মকর্তাদের মধ্যেও সংশয় দেখা দিয়েছে। কেননা, সম্প্রতি ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) যাচাই করার জন্য ইসির ডাকে প্রায় এক-তৃতীয়াংশ দল সাড়া দেয়নি।  

৩৯টি দলকেই ইসিতে আমন্ত্রণ জানানো হলেও মতবিনিময় সভায় আসেনি মোট ১১টি দল। এগুলো- বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি), বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, বাংলাদেশ মুসলিম লীগ-বিএমএল, বিপ্লবী ওয়াকার্স পার্টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ ও লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি।

ইসি কর্মকর্তারা বলছেন, এবার দলগুলোকেও বেশ কয়েকটি ভাগে ভাগ করে পৃথক পৃথক সময়ে সংলাপে বসার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হবে। তবে কোনো দল না এলে তাকে ফের আমন্ত্রণ জানানো হতে পারে।  

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর বলেন, আমাদের দরজা দলগুলোর জন্য সব সময় খোলা। সংলাপে বিএনপি না এলে আমরা বারবার আমন্ত্রণ জানাবো। এছাড়া নিজে থেকেও যদি কোনো পারমর্শ দিতে কথা বলতে চায়, সেটিও আমরা নেবো।  

বর্তমান নির্বাচন কমিশন গত ফেব্রুয়ারিতে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন মহলের সংঙ্গ সংলাপের আয়োজন করে। এক্ষেত্রে শিক্ষাবিদ, বিশিষ্টজনদের, সাংবাদিক, পর্যবেক্ষকদের পরমর্শ নেয় তারা। এরপর ইভিএম যাচাই করতে দেশসেরা প্রযুক্তিবিদ, রাজনৈতিক দলগুলোকেও আমন্ত্রণ জানায়। এবার আয়োজন করতে যাচ্ছে দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ।  

২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রায় দেড় বছর আগে আগস্টে দলগুলোর সঙ্গে সংলাপের বসেছিল তৎকালীন কেএম নূরুল হুদা কমিশন। এবার একই পথ ধরে আগস্টের শেষেই সংলাপ শুরুর সময় হিসেবে ভাবনায় রাখা হয়েছে।  

সে সময় ২০১৭ সালের ২৪ আগস্ট থেকে ১৯ অক্টোবর পর্যন্ত দলগুলোর সঙ্গে বৈঠক করে ইসি। এক্ষেত্রে বেশির ভাগ দিন সকাল-বিকেল দুটি করে দলের সঙ্গে বৈঠক করা হয়। তবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সঙ্গে যে দুই দিন বসেছিল, সেদিন আর কোনো দলের সঙ্গে সংলাপ করেননি ইসি।

ইসির সঙ্গে সে সময় ৩৯টি দলই সংলাপে অংশ নেয়। এদের মধ্যে বেশিরভাগ দল সেনা মোতায়েনের পক্ষে এবং বর্তমান সরকারের অধীনে নির্বাচনের বিপক্ষে ও ইভিএম ভোটগ্রহণ না করার সুপারিশ করে।  

সংলাপের মতামত পর্যালোচনা করে দু’টি অংশে ভাগ করে একটি অংশকে নিজেদের বাস্তবায়ন যোগ্য মনে করে ইসি, যদি তাদের কাছেই রাখে। অন্য অংশটি সরকারের এখতিয়ারভুক্ত হওয়ায় ২০১৮ সালের ১৬ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, মন্ত্রিপরিষদ সচিবের দপ্তরসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে পাঠানো হয়।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫২ ঘণ্টা, জুলাই ০৫, ২০২২
ইইউডি/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa