ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ বৈশাখ ১৪৩১, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

ফিচার

বিশেষ দিবসে ভালো রোজগারের আশা নিম্ন আয়ের মানুষের

ইফফাত শরীফ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২৩
বিশেষ দিবসে ভালো রোজগারের আশা নিম্ন আয়ের মানুষের

ঢাকা: আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে মঙ্গলবার (২১ ফেব্রুয়ারি) ফুল বিক্রি করতে রাজধানীর মেরাদিয়া থেকে হাতিরঝিল এসেছেন ষাটোর্ধ বৃদ্ধা নাজমা বেগম। সঙ্গে শাহবাগ থেকে কিনে এনেছেন পাঁচ হাজার টাকার ফুল।

বিশেষ এই দিনটিতে ফুল বিক্রি করে একটু ভালো রোজগারের আশায় বৃদ্ধ বয়সে তার এই অক্লান্ত পরিশ্রম। কিন্তু সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত হাতিরঝিলে বসে থেকেও একটি ফুলও বিক্রি করতে পারেননি তিনি।

নাজমা বেগমের মতো আরও অনেক নিম্ন আয়ের মানুষ আজকে একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে হাতিরঝিলে ফুল বিক্রি করতে এসছেন। তাদের কাছে বিভিন্ন রঙের গোলাপ, বেলি ফুলের মালা ও বিভিন্ন ফুল দিয়ে তৈরি মাথার ব্যান্ড রয়েছে। যেগুলোর দাম ২০ টাকা থেকে ১০০ টাকা।

নাজমা বেগম বাংলানিউজকে বলেন, ‘ঘরে ছেলে আছে, সে গাড়ি চালায়। কিন্তু তার এই অল্প টাকা দিয়া সংসার চালে না, খুব কষ্ট হয়ে যায়। তাই কিছু বেশি রোজগারের আশায় বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবসসহ বিভিন্ন দিবসগুলোতে ফুল বিক্রি করি। এই টাকা দিয়ে যদি একটু ভালো করে সংসার চলানো যায় এই আশায় রাস্তায় ফুল বিক্রি করি। আমাগের মতো গরিব মাইনষের ভাল থাকতে অনেক কষ্ট করতে হয়। ’

তিনি আরও বলেন, আজকে ভাষা শহীদ দিবস। ভাবছিলাম সকালের দিকে কিছু ফুল বিক্রি করতে পারব। কিন্তু সকালে হাতিরঝিলে লোক ছিল কম। হয়তো বিকেলের দিকে লোক হবে তখন বিক্রি ভাল হবে।

এই বৃদ্ধার মতো আরও অনেকে হাতিরঝিলে ফুল বিক্রি করছেন। যাদের মধ্যে বেশির ভাগই শিশু এবং নারী। আর এসব ফুল বেশি কিনছেন পরিবার-পরিজন এবং বন্ধুবান্ধব নিয়ে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীরা।

বৈশিক মন্দা ও দেশের চলমান অর্থ সংকট এবং দ্রব্যমূল্যের ক্রমাগত ঊর্ধ্বগতিতে একটু ভাল আয়ের আশায় দিবসগুলোতে এ রকম ব্যবসা করছেন নিম্ন আয়ের মানুষেরা।

মঙ্গলবার দুপুরে সরেজমিনে রাজধানীর বিনোদন স্থান হাতিরঝিলে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের সঙ্গে কথা বলে এমনটাই জানা গেছে।

অন্যান্য দিবসগুলোতে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত হাতিরঝিলে দর্শনার্থীদের ভিড় দেখা যায়। কিন্তু সে তুলনায় আজকের লোকসমাগম বেশ কম। বেশিরভাগ মানুষই আজকে শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে শাহবাগ ও শহীদ মিনার এলাকায় যাচ্ছেন। সে কারণে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দর্শনার্থী কম হয়েছে। তবে বিকেলে লোক বাড়বে বলে মনে করছেন এসব মৌসুমী ফুল ব্যবসায়ীরা।

দুপুর ১ টায় হাতিরঝিলের রামপুরা অংশে মায়ের সঙ্গে ফুল বিক্রি করছিল ৯ বছরের শিশু সাদিয়া। ফুল বিক্রির জন্য একটু পর পরই হাতিরঝিলে আগত দর্শনার্থীদের কাছে ছুটে যাচ্ছিল। কাছে গিয়ে ‘আফা একটি ফুল লন, ভাইয়া একটি ফুল লন’ বলে আকুতি জানাচ্ছিল সে।

আজকে কী দিবস সেটা সাদিয়া জানে না। তবে সে জানে আজকে কোনো বিশেষ দিবস। আর বিশেষ দিবস মানেই বেশি ফুল বিক্রি।

সাদিয়া জানায়, বিশেষ দিবসে বেশি ফুল বিক্রি হয়। তাই মায়ের সঙ্গে হাতিরঝিলের এই পাশে (রামপুরা) এসেছে তারা। তবে সকাল থেকে তেমন লোকজন না আসায় খুব একটা ফুল বিক্রি হয়নি। বিকেলের দিকে মানুষ বাড়বে, সেই আশায় মায়ের সঙ্গে বসে আছে সে।

হাতিরঝিল ওয়াটারট্যাক্সির দায়িত্বরতদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ২১ ফেব্রুয়ারি বা সরকারি ছুটির দিনগুলোতে জনসাধারণের বিনোদনের জন্য ওয়াটারট্যাক্সি এবং প্যাডেল বোটের ব্যবস্থা রয়েছে। ৩০ মিনিট থেকে ১ ঘণ্টা পর্যন্ত ভ্রমণের ব্যবস্থা রেখেছে হাতিরঝিল ওয়াটারট্যাক্সি কর্তৃপক্ষ। ওয়াটারট্যাক্সিতে ৩০ মিনিট ভ্রমণে একজন যাত্রীকে গুনতে হবে ৮০ টাকা। আর প্যাডেল বোট রিজার্ভ করে ৩০ মিনিট থেকে ১ ঘণ্টা ভ্রমণের জন্য গুনতে হবে ২০০ থেকে ৩৫০ টাকা পর্যন্ত। ২১ ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে ১০ থেকে ১৫ হাজার যাত্রী হাতিরঝিলে ওয়াটারট্যাক্সি বা প্যাডেল বোটে ভ্রমণ করবেন এমন আশা করছেন দায়িত্বরতরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২৩
ইএসএস/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।