ঢাকা, রবিবার, ১০ আষাঢ় ১৪৩১, ২৩ জুন ২০২৪, ১৫ জিলহজ ১৪৪৫

ফিচার

ফুলে ফুলে সাজল ঢাকা

দেলোয়ার হোসেন বাদল, সিনিয়র ফটোকরেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০০ ঘণ্টা, মে ৮, ২০২৪
ফুলে ফুলে সাজল ঢাকা

ইট পাথরের বড় বড় দালান আর ধুলায় মলিন অজস্র স্থাপনা। এ নিয়েই যেন নগর ঢাকা।

তবে বসন্ত পেরিয়ে প্রকৃতিতে আসা গ্রীষ্মকাল ঢাকাকে যেন এক ভিন্নরূপ দিয়েছে। নগরের আনাচে-কানাচে উঁকি মারছে লাল হলুদসহ নানা রঙের ফুল। রক্তরাঙা কৃষ্ণচূড়া আর সোনালু ফুলের রঙিন আভায় রাজধানী যেন সেজেছে অপরূপ সাজে।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ও সড়কের পাশে ফোটা কৃষ্ণচূড়া আর হলুদে আচ্ছাদিত সোনালু ফুল শুধু নগরবাসীরই নয়, বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা দর্শনার্থীদের নজর কাড়ে।

রাজধানীর সংসদ ভবনের পেছনের চন্দ্রিমা উদ্যান লেক রোড, বিজয় সরণি, হাতিরঝিল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হল, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, রমনা পার্ক, ওসমানী উদ্যান ঘুরে দেখা যায়, গাছে গাছে নানান ফুলে প্রকৃতি সেজেছে অনিন্দ্য সাজে।  

কৃষ্ণচূড়া স্বর্গপুরী বানিয়ে রেখেছে সংসদ ভবনের পেছনে লেক রোডের (চন্দ্রিমা  উদ্যান) পুরোটাই। এই স্বর্গপুরীর সৌন্দর্য উপভোগ করতে প্রতিদিনই সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত পরিবার-পরিজন ও বন্ধু-বান্ধব নিয়ে ভিড় জমান শত শত দর্শনার্থী।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থেকে আগত রুমেলসহ কয়েজন বন্ধু বাংলানিউজকে বলেন, এতদিন আমরা পত্রিকার পাতায় কিংবা টেলিভিশনে দেখেছি এই এলাকার অপরূপ দৃশ্য। আজ আমরা নিজেদের চোখেই দেখলাম। আমরা সত্যি মুগ্ধ।

তারা বলেন, আমার মনে করছি, এই এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর  তদারকি একটু বাড়ানো দরকার। কারণ যেই পরিমাণে কিশোরদের চলাফেরা এবং বাইকের আনাগোনা। কিছুটা ভয় কাজ করে।

এদিকে হাতিরঝিলে ঢুকতেই রাস্তার দুই পাশের  কৃষ্ণচূড়া, সোনালু আর জারুল ফুল সবাইকে স্বাগত জানায়। নানান ফুলে ঘেরা পুরো হাতিরঝিলের রাস্তার সৌন্দর্য দেখতে আসা দর্শনার্থী কিংবা হাতিঝিলে চলাচলকারী যাত্রীদের বিমোহিত করে।

হলুদাভ সোনালু, কাঠগোলাপ আর নাগলিঙ্গম ফুলে ছেয়ে আছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হল এলাকা। ঘুরতে আসা প্রতিটি মানুষের মনকে নাড়া দেয় এই ফুল। তাই তো এই সময় ছবি তোলা দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখরিত থাকে কার্জন হল।

এছাড়া রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে কিংবা বড় বড় দালানের কোণে ফুটে রয়েছে বাগানবিলাস, নয়তারা, মোরগ ফুলসহ নাম না জানা শত শত ফুল। যা শহরকে করেছে ফুলের রাজ্য।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০২ ঘণ্টা, মে ০৮, ২০২৪
এমএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।